ঢাকা | জুন ১৫, ২০২৪ - ১১:৩৩ পূর্বাহ্ন

পাকিস্তান ক্ষমা চাইলে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক বাড়বে

  • আপডেট: Sunday, February 5, 2023 - 5:15 pm

অনলাইন ডেস্ক: পাকিস্তান ক্ষমা চাইলে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক বাড়বে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক বাড়াতে চায় পাকিস্তান। তবে আমি বলেছি, ১৯৭১ সালে নিরস্ত্র বাঙালিদের ওপর সংঘটিত নৃশংসতার জন্য পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাওয়া উচিত। তাহলেই সম্পর্ক বাড়বে।’

কলম্বো সফর শেষে রবিবার ঢাকায় ফিরে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এ কথা বলেন মন্ত্রী। ড. মোমেন আরও জানান, ‘পাকিস্তানের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হিনা রব্বানি খারের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। সেখানে তিনি বলেছেন- বাংলাদেশের সঙ্গে পাকিস্তান সম্পর্ক বাড়াতে আগ্রহী। আমি তাকে বলেছি, ১৯৭১ সালে নিরস্ত্র বাঙালিদের ওপর সংঘটিত নৃশংসতার জন্য পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাওয়া উচিত। তাহলেই সম্পর্ক বাড়বে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘হিনা রব্বানি বলেছেন- বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে চায় পাকিস্তান। তবে আমি বলেছি, বাংলাদেশি পণ্যের ওপর অ্যান্টি ডাম্পিং দিয়ে রেখেছে, বাণিজ্য কীভাবে বাড়বে।’ এসময় কলম্বোয় নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. বিমলা রাই পাউডিয়ালের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে তুলে ধরে ড. মোমেন জানান, ‘সার্ক সামিট করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা বলেছি, সার্ক সামিট করার জন্য ভারত-পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা করুন। আমরা পাশে আছি।’

ড. মোমেন জানান, ‘শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে আলাপ হয়েছে। শ্রীলঙ্কা বৌদ্ধ অধ্যুষিত দেশ৷ সে কারণে মিয়ানমারে সঙ্গে সম্পর্ক ভালো। আমরা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে শ্রীলঙ্কার সহযোগিতা চেয়েছি।’ এর আগে, শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতার ৭৫তম বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন তিনদিনের কলম্বো সফরে যান।

সোনালী/জেআর