ঢাকা | জুন ২৫, ২০২৪ - ৫:৪৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

স্ত্রীকে কু-প্রস্তাব দেওয়ায় বন্ধুকে হত্যার অভিযোগ, স্বামীসহ গ্রেফতার ৩

  • আপডেট: Saturday, February 4, 2023 - 3:52 pm

অনলাইন ডেস্ক: স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব দেওয়ায় বরিশাল নগরীর রূপাতলী এলাকার ব্যবসায়ী শাহিন মোল্লাকে (৩৮) বাসায় ডেকে নিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার পর বাথরুমের ফলস ছাদে মরদেহ লুকিয়ে রেখেছিল আরেক ব্যবসায়ী এবং তার দুই সহযোগী।

হত্যাকাণ্ডের ৭ দিন পর শাহিনের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে র‌্যাব-৮। এ ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ব্যবসায়ী ইউসুফ মোল্লাসহ তার অপর দুই সহযোগীকে র‌্যাব গ্রেফতার করেছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের সংশ্লিষ্ট থানায় সোপর্দ করা হয়।

শনিবার বেলা ১২ টায় নগরীর রূপাতলী র‌্যাব-৮ সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান র‌্যাবের কমান্ডার লে. কর্নেল মাহমুদুল হাসান।

এই র‌্যাব কর্মকর্তা জানান, গত ২৭ জানুয়ারি বরিশাল নগরীর রূপাতলী ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের ব্যবসায়ী শাহিন মোল্লা নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় শাহিনের স্বজন খালেক হাওলাদার গত ৩০ জানুয়ারি কোতয়ালী মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন। ৩১ জানুয়ারি শাহিনের বোন শিরিন আক্তার মুন্নী এ ঘটনায় র‌্যাবের কাছে অভিযোগ করেন। এদিকে ২ ফেব্রুয়ারি অভিযুক্তরা শাহিনের পরিবারের কাছে ফোন করে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

এর সূত্র ধরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় র‌্যাব গত শুক্রবার জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই নারীর স্বামী ইউসুফ মোল্লা (৩৮), তার দুই সহযোগী নাজমুল ইসলাম অমি (১৯) এবং হামিম শিকদার (১৯) নামে ৩ জনকে গ্রেফতার করে। র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার ৩ ব্যবসায়ী শাহিন মোল্লাকে হত্যার কথা স্বীকার করে। পরে তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, গত শুক্রবার ইউসুফের ভাড়া বাসা রূপাতলীর কাঠালতলা তালুকদার হাউজিংয়ের নাহার ভিলার চতুর্থ তলার বাথরুমের ফলস ছাদে লুকিয়ে রাখা শাহিন মোল্লার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে র‌্যাব।

র‌্যাব অধিনায়ক আরও জানান, একই এলাকায় ব্যবসা করার সুবাদে শাহিন ও ইউসুফ পরস্পরের পরিচিত। এর সূত্র ধরে ইউসুফের বাসায় গিয়ে তার স্ত্রীকে (স্বর্না বিশ্বাস) কুপ্রস্তাব দেয় শাহিন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শাহিনকে হত্যার পরিকল্পনা করে ইউসুফ। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ২৭ জানুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে শাহিনকে ডেকে বাসায় ডেকে নেয় ইউসুফ। এ সময় ঘরে লুকিয়ে থাকা তার অপর দুই বন্ধু অমি ও হামিমকে সঙ্গে নিয়ে শাহিনকে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করে। পরে তার লাশ টয়লেটের ফলস ছাদে রেখে ওই ভাড়া বাসা ছেড়ে অন্যত্র বাসা ভাড়া নেয় ইউসুফ। গ্রেফতারকৃত ৩ জনকে গতকাল কোতয়ালী থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-৮ অধিনায়ক লে. কর্নেল মাহমুদুল হাসান।

সোনালী/জেআর