ঢাকা | জুন ১৮, ২০২৪ - ৫:২৩ অপরাহ্ন

হিরো আলমের অভিযোগ ভিত্তিহীন: ইসি রাশেদা সুলতানা

  • আপডেট: Thursday, February 2, 2023 - 4:32 pm

অনলাইন ডেস্ক: বিএনপির ছেড়ে দেওয়া বগুড়া-৬ (সদর) ও বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) সংসদীয় আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলমের তোলা অভিযোগের ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন ভবনে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

হিরো আলম নির্দিষ্ট করে কয়েকটি কেন্দ্রের কথা উল্লেখ করেছেন জানিয়ে প্রশ্ন করলে রাশেদা সুলতানা বলেন, ‘এর কোনো ভিত্তি নেই। পত্রিকায় বিষয়টি আসার পরেই সকাল থেকে এটা আমলে নিয়ে আমরা রেকি করেছি। এর জন্য বগুড়া জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলেছি। জেলা-উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, থানা নির্বাহী অফিসারের (টিএনও) সঙ্গে স্যার (প্রধান নির্বাচন কমিশনার) নিজে কথা বলেছেন। তারা আমাদের নিশ্চিত করেছেন, এ ধরনের কোনো ইয়ে তাদের কাছে নেই। তাদের রেজাল্ট একদম হান্ড্রেড পারসেন্ট ওকে। এখানে কোনো রকম ইয়ে নেই।’

বিষয়টি নিয়ে কমিশন আর কোনো তদন্তে যাবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না, আমরা স্যাটিসফায়েড। আমাদের কাছে যে রেজাল্ট শিটগুলো এসেছে, সেগুলো আমরা নিজেরাও ক্যালকুলেট করে দেখলাম আসলে কোথাও কোনো ব্যত্যয় নেই’।

ইসি রাশেদা সুলতানা আরও বলেন, একজন প্রার্থী যখন হেরে যায় তখন কিন্তু নানা ধরনের প্রশ্নবিদ্ধ করার প্রবণতা আমাদের দেশে আছে। এটা শুধু হিরো আলম সাহেব না, আমরা যতগুলো নির্বাচন করলাম, সব জায়গায় এ ধরনের প্রবণতা আমরা লক্ষ্য করেছি।’

কিছু কেন্দ্রে হিরো আলমের এজেন্টদের ফলাফল দেওয়া হয়নি এমন অভিযোগের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘আমরা খোঁজ নিয়ে জেনেছি, তিনি নন্দীগ্রামে খুব একটা এজেন্ট দেননি। জেলা প্রশাসকের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি বলেছেন, ‘আমরা খোঁজ নিয়ে জেনেছি, তিনি নন্দীগ্রামে খুব একটা এজেন্ট দেননি। জেলা প্রশাসকের সঙ্গে আমার যেটা কথা হয়েছে; তিনি বলেছেন, আমি এবং এসপি সাহেব নিজে কেন্দ্র ভিজিট করেছি। আমরা সেখানে গিয়ে তার কোনো এজেন্ট পাইনি। কাহালুতে উনার কিছু এজেন্ট ছিল। কাহালু উনার নিজের এলাকা। নন্দীগ্রামে উনার বাড়ি না।’

ইসি রাশেদা সুলতানা বলেন,’অন্যান্য প্রার্থীর এজেন্ট নেই, রেজাল্ট দেওয়া হয়নি এ ধরনের কোনো অভিযোগ নেই। যেহেতু উনি হেরে গেছেন উনি কিন্তু এই অভিযোগগুলো করছেন। টিভিতে আমি দেখেছি, উনি বলেছেন ভোট ভালো হয়েছে এবং একটা সাক্ষাৎকারে আমি দেখলাম, সাংবাদিক প্রশ্ন করেছেন, আপনি যদি হেরে যান তাহলে কীভাবে নেবেন? উনি বলেছেন, হেরে গেলে আমি ফলাফল মেনে নেব। উনি হেরে গেছেন, উনার কষ্ট হয়েছে, উনি কষ্টের নানাভাবে প্রকাশ করছেন। এটা তো উনি করতেই পারেন। একজন মানুষ বললেই তো আর হয়ে যায় না, প্রমাণ তো থাকতে হবে’।

সোনালী/জেআর