ঢাকা | জুন ২৫, ২০২৪ - ৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

চতুর্থ দফায়ও ফখরুল-আব্বাসের জামিন মেলেনি

  • আপডেট: Wednesday, December 21, 2022 - 5:19 pm

অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর পল্টন থানার মামলায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের অন্তবর্তীকালীন জামিন আবেদন ফের নামঞ্জুর করেছেন আদালত। এ নিয়ে চতুর্থবারেরচতুর্থ দফায়ও ফখরুল-আব্বাসের জামিন মেলেনি মতো তাদের জামিন আবেদন নাকচ করা হলো।

বুধবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আছাদুজ্জামান এ আদেশ দেন। তবে রাজনৈতিক নেতা ও সম্মানিত ব্যক্তি হওয়ায় কারা কর্তৃপক্ষকে তাদের সুচিকিৎসার নির্দেশের দেন আদালত।

এদিন মির্জা ফখরুল ও আব্বাসের পক্ষে জামিন চেয়ে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জয়নুল আবেদীন, মাসুদ আহমেদ তালুকদার ও সৈয়দ জয়নুল আবেদীন মেজবাহ। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের হয়ে জামিনের বিরোধিতা করেন মহানগর পিপি আব্দুল্লাহ আবু।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তাদের জামিন নাকচ করেন। এর আগে গত ৯, ১২ ও ১৫ ডিসেম্বর তিন দফায় ফখরুল-আব্বাসের জামিন আবেদন নাকচ করেন আদালত।

জামিন আবেদনকারী আইনজীবী সৈয়দ জয়নুল আবেদীন মেজবাহ বলেন, পুলিশের ওপর হামলার পরিকল্পনা ও উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে পল্টন থানায় দায়ের করা মামলায় তাদের অন্তবর্তীকালীন জামিন আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু বিচারক তাদের জামিন দেননি।

প্রসঙ্গত, গত ৮ ডিসেম্বর রাতে মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাসকে তাদের নিজ নিজ বাসা থেকে আটক করে ডিবি পুলিশ। এর পরদিন পল্টন থানায় করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাদের আদালতে তোলা হয়। আদালত তাদের জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর একাধিকবার তার পক্ষে জামিন চেয়ে আদালতে আবেদন করা হলেও তা নাকচ হয়।

এর আগে গত ৭ ডিসেম্বর বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এতে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হন অনেকে। এসময় বিএনপি কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে চাল-ডাল, পানি, নগদ টাকা ও বিস্ফোরকদ্রব্য পাওয়া যায় বলে জানায় পুলিশ।

এ ঘটনায় পল্টন থানার উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় ৪৭৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত দেড় থেকে দুই হাজার বিএনপির নেতা-কর্মীকে আসামি করা হয়। এ মামলায় মির্জা ফখরুল, মির্জা আব্বাসসহ বিএনপির শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

সোনালী/জেআর