ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২২, ২০২৪ - ২:৪৭ অপরাহ্ন

বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল তিন জাহাজ শ্রমিকের

  • আপডেট: Saturday, November 26, 2022 - 2:19 pm

অনলাইন ডেস্ক: চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে এনা বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল ৩ জাহাজ শ্রমিকের। এছাড়া আহত হয়েছে আরও ২ শ্রমিক।

শনিবার ভোর সাড়ে পাঁচটায় উপজেলার জোরারগঞ্জ থানার চিনকি আস্তানা এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- পিকাআপ চালক মাদারীপুর জেলার শিবচর থানার ভদ্রাসন এলাকার আব্দুর রব বেপারীর ছেলে মো. খোরশেদ আলম (৩৮), জাহাজ শ্রমিক বরিশাল জেলার বানারী পাড়া থানার ১নং বিশারকান্দি ইউনিয়নের ১নং বিশারকান্দি ওয়ার্ডের মৃত হায়দার আলির ছেলে সোহেল (৩৮), ফিরোজপুর জেলার স্বরুপকাঠি থানার ১নং বলদিয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড উরি ভূইয়া গ্রামের মুজাফফরের ছেলে মো. হাসান (৪২)।

এছাড়া আহত হয়েছেন বরিশাল জেলার স্বরূপকাঠি থানার বদলিয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মোহাম্মদ বাদলের ছেলে মো. আরিফ (৩৮) ও ফিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠি থানার বলদিয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড উরি ভূইয়া গ্রামের মোহাম্মদ ছব্দার আলীর ছেলে মো. মিজান (৩৫)। আহতদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহতদের দুইজনের মরদেহ মিরসরাই জোরারগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ হেফাজতে ও একজনের মরদেহ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মর্গে আছে।

নিহত সোহেলের আত্মীয় নাছির উদ্দিন সোহাগ জানান, নিহতরা সবাই জাহাজের শ্রমিক। তারা একটি জাহাজের পাটাতন ঢাকায় মেরামত শেষে পিকআপ যোগে চট্টগ্রামে আসছিল। ড্রাইভার পিকআপটি মিরসরাইয়ের চিনকি আস্তানা এলাকায় মহাসড়কের পাশে দাঁড় করিয়ে দোকানে গেলে পিকআপের পেছন দিকে দ্রুতগামী একটি এনা বাস ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে জাহাজ শ্রমিক হাসান (৪২) ও ড্রাইভার খোরশেদ আলম মারা যান। এছাড়া আহত হন সোহেল (৩৮), মো. আরিফ (৩৮) ও মো. মিজান (৩৫)। আহতদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে পাঠালে হাসপাতালে নেয়ার পর সোহেলের (৩৮) মৃত্যু হয়। বাকি দুই জনের অবস্থাও সংকটাপন্ন।

জোরারগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ জানায়, নিহত ড্রাইভার খোরশেদ আলম ও হাসানের মৃতদেহ তাদের হেফাজতে রয়েছে। এছাড়া ঘাতক এনা বাসটি (ঢাকা-মেট্রো-ভ-১৪-৯৩৬১) জব্দ করা হয়েছে। দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পিকআপ ঢাকা মেট্রো-ন-১৯-৪৪২১ উদ্ধার করা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে নিহতদের মরদেহ আপনজনের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

সোনালী/জেআর