ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২৪ - ২:১৫ পূর্বাহ্ন

পাঁচ গ্রামের ১০ হাজার মানুষ নদীভাঙনের কবলে

  • আপডেট: Tuesday, September 6, 2022 - 11:59 pm

 

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার নদীভাঙন থেকে ৫টি গ্রামের প্রায় ১০ হাজার মানুষকে রক্ষা ও স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার রাজাবাড়ী হাট এলাকায় রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়ক ঘিরে এই মানববন্ধন পালন করে এলাকাবাসী। মানববন্ধনে ভাঙন কবলের মুখে পড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, জনপ্রতিনিধি, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতাসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গোদাগাড়ী উপজেলার নিমতলা, চকপাড়া, খারিজাগাঁতী, বাদলবারই পাড়া, আলীপুর গ্রামের ১০ হাজার মানুষ গত দুই বছর থেকে পদ্মার অব্যাহত ভাঙনের ফলে চরম ক্ষতির মধ্যে পড়েছে। নদীভাঙনের ফলে তিন ফসলি জমি, আমবাগান, পাকা বসতভিটা, স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা, মসজিদ-মন্দির নদীগর্ভে বিলীন হচ্ছে।

বর্তমানে বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নদীভাঙনের মুখে পড়েছে। জরুরি ব্যবস্থা না নিলে প্রতিষ্ঠানগুলো নদীতে চলে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। নদী পাড়ে ঝুলে থাকা প্রতিষ্ঠানে শিশুরা পড়তে ভয় করছে। এলাকাবাসী ভাঙন রোধে স্থায়ী সমাধান ও উদ্যোগ নিতে রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এলাকাবাসী অভিযোগে আরও বলেন, গত দুই বছর থেকে নদী ভাঙন চলছে। গত বছর পানি উন্নয়ন বোর্ড বালির বস্তা ফেলেছে। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি। এলাকাবাসীর দাবি মেনে পানি উন্নয়ন বোর্ড স্থায়ী কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না।

পাউবোর সদিচ্ছার অভাব রয়েছে বলেও এলাকাবাসী অভিযোগ করেছেন। তাদের আরও অভিযোগ পাউবো জিও ব্যাগ ফেলতে মোটা অঙ্কের বাজেট করলেও বাস্তবে তারা সামান্য কাজ করেছে।

মানববন্ধন ও সমাবেশে উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বেলাল উদ্দিন সোহেল, রাজাবাড়ীহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামারুজ্জামানসহ এলাকার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।