ঢাকা | জুন ১৬, ২০২৪ - ৫:০২ অপরাহ্ন

কৃষকের পরিশ্রমের কারণে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ: কৃষিমন্ত্রী

  • আপডেট: Wednesday, August 24, 2022 - 10:18 pm

 

অনলাইন ডেস্ক: কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, গুলশান-বনানীর ব্যবসায়ীরা কৃষিপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি ঘটিয়ে নব্য শোষক শ্রেণীতে পরিণত হয়েছে। আমরা সাড়ে ১৬ কোটি মানুষকে দেশের উৎপাদন দিয়েই খাওয়াচ্ছি। কৃষকের পরিশ্রমের কারণে বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ।

তিনি বলেন, দেশে সারের কোনো সঙ্কট নেই। সঙ্কট সৃষ্টিকারীদের ক্ষমা করা হবে না। একইসাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

বুধবার দুপুরে যশোর পিটিআই অডিটোরিয়ামে আয়োজিত কৃষি বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় কৃষিমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামাতের আমলে সারের মূল্য ৯০ টাকায় নিয়ে ঠেকিয়েছিল। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় এসেই সারের মূল্য কমিয়ে ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে এনেছে। গত ১৩ বছরের মধ্যে সারের মূল্য বাড়ানো হয়নি।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মন আকাশের মতো উদার। তার দয়ায় খালেদা জিয়া জেলের বাইরে আছেন। ক্ষমতায় আসতে হলে নির্বাচনের মাধ্যমে আসতে হবে। লন্ডন থেকে রিমোট কন্ট্রোল চালিয়ে হবে না।

তিনি বলেন, দেশের অর্থনীতি ও খাদ্য নিরাপত্তায় অনেক ভালো আছে, একটি চক্র অপপ্রচার চালাচ্ছে। প্রতিদিন সকালে তারা ঘুম থেকে উঠে পত্রিকার পাতা দেখে সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে। তারা চায় বাংলাদেশ ‘শ্রীলঙ্কা’ হয়ে যাক। সারা পৃথিবীতে মূল্যস্ফীতি ঘটেছে। এর মাঝেও বাংলাদেশ ভালো আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মূল্যস্ফীতি থেকে দেশকে রক্ষায় সরকার কাজ করছে। দ্রব্যমূল্যের সাময়েক উর্ধ্বগতি কষ্ট দিলেও এটা স্থায়ী না।

বিদ্যমান শস্যবিন্যাসে তৈল ফসলের অন্তর্ভুক্তি ও অধিক ফলনশীল ধানের জাতসমূহের উৎপাদন বৃদ্ধির শীর্ষক কর্মশালায় জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদারসহ কৃষি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা, কৃষক ও বীজ ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।