ঢাকা | জুন ২২, ২০২৪ - ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন

রাবিতে বিষধর খৈয়া গোখরা সাপ উদ্ধার

  • আপডেট: Friday, August 12, 2022 - 10:14 pm

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আবাসিক এলাকা পূর্বপাড়া কোয়ার্টার থেকে ৪-৫ হাত লম্বা একটি বিষধর খৈয়া গোখরা সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মিজানুর রহমান মিজান সাপটি উদ্ধার করেন।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্বপাড়া কোয়ার্টারের ৪৩ সি বাড়িতে থাকেন জিয়া হলের এক প্রহরী। তিনি সাপটি দেখতে পেয়ে মিজানকে ফোন করে জানান। পরে মিজান গিয়ে সাপটি উদ্ধার করেন। সাপ উদ্ধারের বিষয়ে মিজান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্বপাড়া থেকে আমার মোবাইলে একটি ফোন আসে। ফোনে আমাকে জানানো হয়, তাদের বাড়ির সিঁড়িঘরে একটা সাপ প্রবেশ করেছে।

তাৎক্ষণিক আমি উদ্ধার সরঞ্জাম নিয়ে সেই বাড়িতে উপস্থিত হয়। গিয়ে দেখি এটা একটি খৈয়া গোখড়া। ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে সাপটা উদ্ধার করি। বর্তমানে সাপটি আমার রুমে কৌটায় রেখে দিয়েছি। কালকে সকালে নিরাপদ স্থানে অবমুক্ত করবো। এই সাপটি মারাত্মক বিষধর ছিল। এই সাপের কামড়ে কিছুক্ষণের মধ্যেই মানুষ মারা যেতে পারে।

মিজানুর রহমান মিজান রাবির ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। যুক্ত আছেন ডিপ ইকোলজি অ্যান্ড স্নেক রেসকিউ ফাউন্ডেশন নামের সাপ ও পরিবেশ নিয়ে কাজ করা একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে। সংগঠনটির একমাত্র রাবি প্রতিনিধি তিনি। সংগঠনটির প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি বিভিন্ন ধরনের সাপ উদ্ধার করেছেন। যার মধ্যে তীব্র বিষধর কালাচ সাপও রয়েছে।

প্রসঙ্গত, সবুজে ঘেরা ৭৫৩ একর আয়তনের রাবি ক্যাম্পাসে রয়েছে অনেকগুলো ডোবা, নালা, পুকুর, ঝোপঝাড়। হর-হামেশাই এখানে ঝোপঝাড় বা লোকালয়ে বিভিন্ন প্রজাতির সাপ চোখে পড়ে। এসব সাপের মধ্যে রয়েছে খৈয়া গোখরা, কালাচ, ঘরগিন্নি, বেত আছড়া, হেলে, মেটে, জল ঢোড়া। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল, একাডেমিক ভবন ও কোয়ার্টার থেকে প্রায়ই এসব সাপ উদ্ধার করা হয়।