ঢাকা | মে ৩০, ২০২৪ - ১:১৫ অপরাহ্ন

রাবি ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত দাবি

  • আপডেট: Monday, August 1, 2022 - 12:10 am

 

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: ভাড়া বাসায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের দাবি জানিয়েছেন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

রোববার বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারিস রোডে আইন বিভাগ আয়োজিত এক মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে এ দাবি জানানো হয়। মানববন্ধন থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে শিক্ষার্থীরা পাঁচ দফা দাবি জানান। তাদের দাবিসমূহ হচ্ছে- সুষ্ঠু তদন্ত করে দ্রুততম সময়ে এই হত্যাকাণ্ডের বিচার করা, অভিযুক্ত ইসতিয়াক রাব্বির ছাত্রত্ব বাতিল, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, মামলার দ্রুত নিষ্পত্তি করে আসামির যথোপযুক্ত সাজার ব্যবস্থা করা এবং রিক্তা আক্তারের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ প্রদান।

মানববন্ধনে আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও রিক্তার সহপাঠী কায়েস মাহমুদ বলেন, রিক্তার স্বামী তাকে সহপাঠীদের সঙ্গে মিশতে দিতো না। এই জন্য তার ক্লাসে কোনো কাছের বন্ধু নেই। প্রতিনিয়তই তাকে শারীরিক এবং মানসিকভাবে নির্যাতন করা হতো। আমরা মনে করি এটা একটা পরিকল্পিত ‘হত্যাকাণ্ড’। আমরা এর সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে অনতিবিলম্বে বিচার চাই।

আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধান বলেন, আমরা সুস্পষ্টভাবে বলছি এটি স্বাভাবিক মৃত্যু নয়। আমরা বিভাগের পক্ষ থেকে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত শেষে দ্রুত জড়িতদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা চাই যাতে রিক্তা হত্যা মামলার সঠিক তদন্ত ও বিচারিক কার্যক্রম বেগবান হয়।

আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল হান্নান বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্টের প্রাথমিক ধারণা অনুযায়ী রিক্তাকে শ্বাসরোধ করে ‘হত্যা’ করা হয়েছে বলে আমরা জেনেছি। আমরা এই ‘হত্যাকাণ্ডে’র সুষ্ঠু তদন্ত চাই। তদন্ত করতে গিয়ে যেন আবার মূল ঘটনা আড়ালে না চলে যায়। যাতে বাংলাদেশে এমন ‘হত্যাকাণ্ড’ আর না ঘটে তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আহসান হাবীবের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে অধ্যাপক বেগম আসমা সিদ্দিকা, অধ্যাপক সাহাল উদ্দিন, অধ্যাপক আবদুল আলীম, মহিলা পরিষদ রাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোবাররা সিদ্দিকা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এসময় আইন বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার দিবাগত রাতে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ধরমপুর এলাকায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় বিশ^বিদ্যালয়ের আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী রিক্তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় মৃতের বাবা বাদী হয়ে নগরীর মতিহার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মৃতের স্বামী ইসতিয়াক রাব্বিকে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।