ঢাকা | মে ২৭, ২০২৪ - ৪:১২ পূর্বাহ্ন

বিএনপি নেতা ছুরিকাঘাত করলেন কর্মীকে

  • আপডেট: Wednesday, July 27, 2022 - 10:48 pm

 

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নজরুল হুদার বিরুদ্ধে মহানগর সেচ্ছাসেবক দলের এক কর্মীকে ছুরিকাঘাতের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় নজরুল হুদা নিজেও আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

গত মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর সোনাদীঘির মোড়ে এই ঘটনা ঘটে। ছুরিকাঘাতে আহত ওই কর্মীর নাম আবু সাঈদ (৩৫)। তিনি নগরীর ষষ্ঠীতলা এলাকার মৃত সেকেন্দার আলীর ছেলে। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৮নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন, আবু সাইদের মাথার পেছনে আঘাতজনিত গুরুতর জখম রয়েছে। সাঈদ এখনও শঙ্কামুক্ত নন।

এদিকে ঘটনার পরপরই মহানগর বিএনপির সদস্য ইমনকে আটক করেছে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশ। ঘটনার পর সোনাদীঘি এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। চিকিৎসাধীন স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মী আবু সাঈদ জানান, বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক নজরুল হুদা তার অনুসারীদের নিয়ে সোনাদীঘির মোড়ের একটি চায়ের দোকানে বসে কথা বলছিলেন। এ সময় আবু সাঈদসহ কয়েকজন নেতাকর্মী সেখানে মোটরসাইকেল রেখে দোকানে প্রবেশ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন নজরুল হুদা। হুদাসহ তার সহযোগীরা সাঈদের মাথার পেছনে শক্ত বস্তু দিয়ে আঘাত করেন এবং লাথি কিল ঘুষি মারতে থাকেন।

অন্যদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে মহানগর বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নজরুল হুদা বলেন, সাঈদ ও ইমনরা চায়ের দোকানে আমার সামনে মোটরসাইকেল রেখে আমাকে ছুরিকাঘাত করে পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় এলাকার লোকজন ছুটে এসে সাঈদ আর ইমনকে ধরে পিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। সাঈদকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আমি নিজেও হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নিয়েছি।

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম বলেন, রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটি নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এ দ্বন্দ্ব নিয়েই পরস্পরকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে ইমন নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।