ঢাকা | মে ৩০, ২০২৪ - ১:০৯ অপরাহ্ন

রাবির ভর্তি পরীক্ষা শুরু কাল, সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন

  • আপডেট: Sunday, July 24, 2022 - 12:09 am

 

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আগামীকাল সোমবার। প্রথম দিন সকাল ৯টায় ‘সি’ ইউনিটের প্রথম শিফটের পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হবে তিন দিনব্যাপী এই পরীক্ষা। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি শেষ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়া জালিয়াতি ঠেকাতে তৎপর রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও আইশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা। গতকাল শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়েল শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ সিনেট ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার।

লিখিত বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, এবারের ভর্তি পরীক্ষায় কোটাসহ মোট ৪ হাজার ৬৪১টি আসনের বিপরীতে মোট ১ লক্ষ ৭৮ হাজার ২৬৮ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবেন। ‘এ’ ইউনিটে মোট পরীক্ষার্থী ৬৭ হাজার ২৩৭ জন, ‘বি’ ইউনিটে ৩৮ হাজার ৬২১ জন এবং ‘সি’ ইউনিটে ৭২ হাজার ৪১০ জন। এবার একটি আসনের জন্য লড়বেন ৪৪ জন ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থী। প্রতিদিন চারটি শিফটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে পরীক্ষা দিতে দেশের নানা প্রান্ত থেকে ইতোমধ্যে নগরীতে আসা শুরু করেছেন ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবকরা। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে আবাসিক হলগুলোতে পরীক্ষার্থীদের আবাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ছাত্রী জিমনেশিয়ামে মহিলা অভিভাবকদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মাঠে থাকবে মেডিকেল টিম
ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থীদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে পরীক্ষা চলাকালে রাবি চিকিৎসা কেন্দ্র পরিচালিত একটি মেডিকেল টিম গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন কর্তৃক পরিচালিত ২ সদস্যের একটি মেডিকেল টিম এবং ৬টি অ্যাম্বুলেন্স সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সহায়তা প্রদানে প্রস্তুত থাকবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে।

জালিয়াতি ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন
প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ভর্তি জালিয়াতি ঠেকাতে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে উপাচার্য বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সুনাম রয়েছে এখানে কোনো প্রশ্নফাঁস হয় না। তবে জালিয়াতি চক্র যে থেমে থাকবে তেমনটা নয়, সেজন্য আমরা সর্তক অবস্থানে আছি। এই অসদুপায় ঠেকাতে ক্যাম্পাসে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের নজরে রাখছে গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। সাদা পোশাকে ক্যাম্পাসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনির সদস্যরা। আর জালিয়াত চক্রের সদস্যদের তাৎক্ষণিক শাস্তি বিধানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে মাঠে থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর কর্তৃক ক্যাম্পাসে ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা চালু থাকবে।

বিভাগীয় শহরে পরীক্ষা গ্রহণের পরিকল্পনা
পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ভোগান্তি লাঘবে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে দেশের চারটি বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন উপাচার্য। সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে উপাচার্য বলেন, সারাদেশের চারটি বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের কথা আমরা ভাবছি। তবে এ বিষয়ে আমি এককভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারি না। আমরা পরবর্তী একাডেমিক কাউন্সিল, ডিনস কমিটি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতিনির্ধারণী কমিটির সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম বলেন, আমরা পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর। ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আশা করছি কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই পরীক্ষা সম্পন্ন হবে।