ঢাকা | মে ২৭, ২০২৪ - ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

বৃষ্টির আশায় ব্যাঙের বিয়ে

  • আপডেট: Saturday, July 23, 2022 - 11:46 pm

নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: ক্যালেন্ডারের পাতায় আষাঢ় পেরিয়ে চলছে শ্রাবণ। তবুও দেখা নেই বৃষ্টির। তাই বৃষ্টির আশায় গ্রাম বাংলার প্রাচীণ রীতিপালন করে নওগাঁর নিয়ামতপুরে দেওয়া হল ব্যাঙের বিয়ে। উপজেলার চন্দননগর ইউনিয়নের জয়পুর গ্রামের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা অভিনব কায়দায় এ ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করে।

শুক্রবার সকাল থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত আড়ম্বরপূর্ণ পরিবেশে নর নারীরা গায়ে রং মেখে নেচে গেয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। ব্যাঙ বর-কনের বিয়ে পড়িয়েছেন স্থানীয় পুরোহিত শ্রী বৈশাখ পাহান।
আয়োজকেরা জানান, প্রবাদ বাক্য রয়েছে ব্যাঙের বিয়ে দিলে বৃষ্টি হয়। তাই বৃষ্টির আশায় গ্রামের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা অভিনব ভাবে এই বিয়ের আয়োজন করে।

প্রায় সপ্তাহ ধরে চলমান খরায় সেচ সংকটে রোপা আমনের মাঠ প্রস্তুত করতে পারছেন না কৃষকরা। মাঠে আঊশের খেতেও সেচ সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। ফেটে চৌচির হয়ে পড়ছে মাঠ।

পুরোহিত বৈশাখ পাহান বলেন, ‘অনাবৃষ্টি ও খরা থেকে মুক্তি পেতে প্রথমে শিশুরা এই ব্যাঙের বিয়ের উদ্যোগ গ্রহণ করলেও তা পরে উৎসবে রূপ নেয়। বড়রাও যোগ দেন। আমাদের বিশ্বাস এই ব্যাঙের বিয়ের মধ্য দিয়ে অনাবৃষ্টি ও খরা কেটে যাবে।’

স্থানীয় বাসিন্দা বৈশাখ পাহান বলেন, ‘অতীতেও এভাবে ব্যাঙের বিয়ে দেওয়ার পর জলের দেখা মিলেছিল। এবারও সে আশা থেকেই এই আয়োজন করা হয়েছে। গতবার ব্যাঙের বিয়ের দিন দুপুর থেকেই বৃষ্টি হয়েছিল।’

এ বিষয়ে ব্যাঙ বরের মা প্রতিমা বলেন, অনেক বছর ধরে দেখে আসছি অনাবৃষ্টি হলেই এই গ্রামের সবাই মিলে ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করে। অনেক সময় বৃষ্টিও হয়েছে। তাই মানুষের মনে এক প্রকার বিশ্বাস জন্ম নিয়েছে, ব্যাঙের বিয়ে দিলেই বৃষ্টি হবে। সেই আশাতেই ব্যাঙের বিয়ে দিয়ে ভগবানের কাছে বৃষ্টি প্রার্থনা করেছি আমরা।