ঢাকা | মে ২৭, ২০২৪ - ৩:৫৬ পূর্বাহ্ন

নাম পাল্টে পালিয়ে ছিলেন ৩০ বছর, অবশেষে ধরা

  • আপডেট: Saturday, July 23, 2022 - 2:10 pm

অনলাইন ডেস্ক: নাম পাল্টে ৩০ বছর পালিয়ে থাকার পরও শেষ রক্ষা হয়নি নাটোরের নলডাঙ্গার চাঞ্চল্যকর শাহাদত আলী হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি শাজাহান আলীর। শনিবার সকালে সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল এলাকা থেকে র‌্যাব-৫ এর একটি দল তাকে গ্রেপ্তার করে।

১৯৯২ সালে নলডাঙ্গার বারনই নদীতে গোসল করার সময় শাহাদতকে ছুরিকাঘাতে হত্যা মামলার আসামি শাজাহান আলীকে যাবজ্জীবন কারদণ্ড দেয় আদালত। এর পর থেকে নিজের নাম পাল্টে ৩০ বছর ধরে পালিয়ে ছিলেন শাজাহান। র‌্যাবের নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন এক প্রেস ব্রিফিং এ এসব তথ্য জানান।

র‌্যাব কর্মকর্তা জানান, ১৯৯২ সালের ১৭মে নলডাঙ্গার বারনই নদীতে শাহাদতকে ছুরিকাঘাতে প্রকাশ্যে হত্যা করে পালিয়ে যায় শাজাহান আলী। এঘটনায় শাহাদতের ভাই সেকেন্দার বাদী হয়ে নাটোর সদর থানায় শাজাহানকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ মামলার শুনানি শেষে ১৯৯৫ সালে ২৯ মে শাজাহানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন জেলা সেশেন আদালত। এরপর থেকে নাম পাল্টে সোহরাব হোসেন স্বপন নামে দিনাজপুরে আত্মগোপন করেন তিনি।

তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তারের পর শাজাহান আলীকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

সোনালী/জেআর