ঢাকা | মে ২০, ২০২৪ - ৫:০৭ পূর্বাহ্ন

ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ছে দাবানল!

  • আপডেট: Sunday, July 17, 2022 - 12:50 pm

অনলাইন ডেস্ক: তীব্র তাপপ্রবাহে সৃষ্ট দাবানলে পুড়ছে ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল। দাবানলের তীব্রতা বেড়েছে স্পেন ও ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলেও।

পর্তুগালের বিভিন্ন এলাকাও শিকার হয়েছে দাবাগ্নি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ইউরোপের এসব দেশের দাবানল নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করছেন হাজারো ফায়ার সার্ভিস কর্মী। কয়েক জায়গায় ব্যবহার হচ্ছে অগ্নি নির্বাপক হেলিকপ্টার-প্লেন।

খবরে বলা হয়েছে, ফ্রান্সের জিরোন্দ অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় আগুনের শিকার হওয়ায় সেখানকার ১২ হাজারের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

২ হাজার ৩০০ মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে স্পেনের দক্ষিণাঞ্চলের মিজাস পাহাড় এলাকা থেকে। এলাকাটিতে বসবাসরত অ্যাশলে বেকার নামে এক ব্রিটিশ নাগরিক জানিয়েছেন, শুক্রবার (১৫ জুলাই) থেকে দাবানলের তীব্রতা ভয়ংকর আকার ধারণ করেছে।

টোরেমোলিনোস এলাকার সাগরতীরে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকরা জানিয়েছেন, পাহাড়ের ওপর ধোঁয়া উড়তে দেখেছেন তারা। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ওই এলাকায় আগুন নিয়ন্ত্রণে প্লেন ব্যবহার করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে আগুন লাগা অংশগুলোয় অগ্নিনির্বাপক বস্তু ছিটানো হচ্ছে। সাগর থেকে পানি নিয়ে দাবানলের শিকার এলাকায় ছিটানো হচ্ছে হেলিকপ্টার থেকে।

ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিম আটলান্টিক উপকূলীয় অঞ্চল তেস্তে দে বুচ এলাকায় দাবানলের তীব্রতা ব্যাপক। এ ছাড়া দক্ষিণের এলাকা বরদক্সে দাবানলের কারণে প্রায় ১০ হাজার হেক্টর (২৫ হাজার একর) এলাকা আগুনে পুড়ে গেছে। সেখানে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে যাচ্ছেন প্রায় তিন হাজার ফায়ার ফাইটার।

দাবানলে আক্রান্ত এলাকাগুলো থেকে জীব-জন্তু উদ্ধারের প্রক্রিয়া চলছে বলে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বিবিসি। কিন্তু এ উদ্ধার কার্যক্রম খুবই মন্থর গতির বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পর্তুগালের উত্তরাঞ্চলে দাবানল নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত একটি প্লেন বিধ্বস্ত হয়েছে। স্পেনের সীমান্তবর্তী ফজ সোয়া এলাকায় বিধ্বস্ত হয়ে আকাশযানটির পাইলট মারা গেছেন।

সূত্র : বিবিসি

সোনালী/জেআর