ঢাকা | মে ২৭, ২০২৪ - ১:০০ পূর্বাহ্ন

বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বে ৩০ কিমি সড়কে থেমে থেমে যানজট

  • আপডেট: Friday, July 8, 2022 - 3:42 pm

অনলাইন ডেস্ক: বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্ত থেকে টাঙ্গাইল শহরের বাইপাস করটিয়া পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার মহাসড়কে যানবাহনের চাপ রয়েছে। অতিরিক্ত গাড়ির চাপের কারণে মাঝে মধ্যে সেতুর টোল আদায় বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে ঈদযাত্রায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে যাত্রীদের। শুক্রবার ভোর থেকে বিভিন্ন স্থানে গাড়ি আটকে যাচ্ছে। থেমে থেমে চলছে গাড়ি। সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ায় অতিরিক্ত গাড়ির চাপ বেড়েছে। মাঝে মধ্যে গাড়ি আটকে কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

টাঙ্গাইলের ট্রাফিক পরিদর্শক এরশাজুল হক জানান, এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধ সেতু পর্যন্ত দুই লেনে যানবাহন ঢুকতে গিয়ে বাধার মুখে পড়ছে। চারলেনে গাড়ি ৬০-৭০ কিলোমিটার গতিতে এসে এক লেনে যেতে হচ্ছে। এখানে কিছুক্ষণ আটকে থাকায় পেছনে যানবাহনের সারি দীর্ঘ হচ্ছে। এতে করে ১৫ কিলোমিটার রাস্তায় ধীরগতিতে যানবাহন চলছে। তবে কোনো যানজট নেই। অতিরিক্ত গাড়ির চাপে টোল নিতে সময় লাগায় পেছনে গাড়ির দীর্ঘ সারি হচ্ছে।

বেসরকারি চাকরিজীবী মিরাজ বাপ্পি বলেন, নীলফামারীর উদ্দেশে গাবতলী থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় বাসে উঠেছি। শুক্রবার দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত পৌঁছতে পেরেছি।

এলেঙ্গায় আটকে থাকা উত্তরবঙ্গগামী বাস চালক সুজন মিয়া বলেন, মহাসড়কে প্রচুর গাড়ি রয়েছে। ৫ কিলোমিটার আসতে এক ঘণ্টারও বেশি সময় লাগলো।

শেফালী বেগম নামের এক নারী যাত্রী বলেন, আমি পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে দিনাজপুর যাচ্ছি। জ্যামে আটকে আমার ছোট বাচ্চাকে নিয়ে খুব কষ্ট হচ্ছে। তাকে দেখে আমারও খুব খারাপ লাগছে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ওসি শফিকুল ইসলাম জানান, সেতুর পশ্চিম পাশে ১৭ নম্বর পিলারের কাছে বাস-পিকআপের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এতে এক ঘণ্টা ৪০ মিনিট টোল আদায় বন্ধ রাখে সেতু কর্তৃপক্ষ। এছাড়া অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ তো রয়েছেই।

এ ব্যাপারে এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আতাউর রহমান জানান, মহাসড়কে প্রচুর গাড়ির চাপ রয়েছে। এ কারণে ধীরগতিতে যানবাহন চলাচল করছে। তবে কোথাও যানজট সৃষ্টি হয়নি।

পুলিশ জানায়, মহাসড়কে এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত দুই লেনের সড়ক একমুখী (ওয়ানওয়ে) করে দেওয়া হয়েছে। ঢাকা থেকে উত্তরবঙ্গগামী যানবাহন এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর দিকে যাচ্ছে। অপরদিকে উত্তরবঙ্গ থেকে ঢাকামুখী যানবাহন সেতু পার হয়ে ভূঞাপুর লিংক রোড ব্যবহার করে এলেঙ্গা পর্যন্ত আসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মহাসড়কের ওই অংশটুকু সাধারণ যানবাহনের জন্য একমুখী করা হয়েছে। তবে উত্তরবঙ্গ থেকে গরুবাহী ট্রাক সরাসরি এলেঙ্গা হয়ে ঢাকা যাচ্ছে।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, গত ঈদের ন্যায় এবারও যানজটমুক্ত মহাসড়ক উপহার দেওয়ার লক্ষে ব্যাপক পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। উত্তরাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বাস সেতুর পূর্বপাপ্রান্ত গোলচত্বর থেকে গোবিন্দাসী এবং ভূঞাপুর হয়ে এলেঙ্গা চার লেনে এসে উঠছে।

সোনালী/জেআর