ঢাকা | মে ২১, ২০২৪ - ৬:৪৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

আবেকে গুলির ঘটনায় হতবাক বিশ্ব নেতারা

  • আপডেট: Friday, July 8, 2022 - 3:01 pm

অনলাইন ডেস্ক: পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর নারায় প্রচার কর্মসূচিতে বক্তব্য দেওয়ার সময় হত্যা চেষ্টার শিকার জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন তিনি।

এ হত্যা চেষ্টার ঘটনায় অবক পুরো বিশ্ব, একই সঙ্গে হতবাক বিশ্ব নেতারা। খবর এপির।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আবের বর্তমান শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বলা হয়েছে, তিনি শ্বাস নিতে পারছেন না। তার হৃদযন্ত্র বন্ধ হয়ে গেছে। তাকে গুলির ঘটনায় শোক ও নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্বের অনেক দেশের সরকারপ্রধান। তারা জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, আবেকে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশও করেন তিনি।

ব্লিঙ্কেন বলেন, আমরা তার অবস্থা জানি না। আমরা জানি, তাকে গুলি করা হয়েছে। আমাদের চিন্তা, আমাদের প্রার্থনা তিনি, তার পরিবার ও জাপানের জনগণের সঙ্গে আছে।

ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপে ২০টি ধনী ও উন্নয়নশীল দেশের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের সময় মার্কিন এ মন্ত্রী আরও বলেন, এটি খুবই দুঃখজনক মুহূর্ত।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শিনজো আবের ওপর হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, এ হামলা বিধ্বংসী। জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে একজন সত্যিকার মহান ব্যক্তি ও নেতা হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন তিনি।

ট্রাম্প আরও বলেন, আবে আমার ও আমেরিকার জন্য একজন গুরুত্বপূর্ণ ও সত্যিকারের বন্ধু ছিলেন। জাপানের জনগণের জন্য এটি অনেক বড় আঘাত। আমরা সবাই আবে ও তার পরিবারের জন্য প্রার্থনা করছি।

এক টুইট পোস্টে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্থনি অ্যালবানিজ বলেছেন, জাপান থেকে মর্মান্তিক খবর পেলাম। সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবেকে গুলি করা হয়েছে। আমাদের সহানুভূতি এ সময় তিনি ও তার পরিবারের এমনবি জাপানের জনগণের জন্য রয়েছে।

শুক্রবার (৮ জুলাই) সাকলে সিডনিতে আলবেনিজের সঙ্গে বৈঠকের সময় আবের ওপর বন্দুক হামলার খবর পান নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন। খবর শুনে গভীরভাবে মর্মাহত হন তিনি।

জেসিন্ডা বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর আনুষ্ঠানিকভাবে যাদের সঙ্গে দেখা হয়েছিল তাদের মধ্যে আবেই প্রথম। তিনি নিজের ভূমিকার প্রতি গভীরভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং উদার ও দয়ালু ছিলেন। আমার মনে আছে তার সঙ্গে দেখা হওয়ার পর তিনি আমার দেশের পোষা প্রাণির সাম্প্রতিক ক্ষতির ব্যাপারে প্রশ্ন করেছিলেন। তার ব্যক্তিত্ব ছিল অসাধারণ। আমার সহানুভূতি রইল তার পরিবার ও জাপানের জনগণের সঙ্গে। এ ধরনের ঘটনা আমাদের মনকে নাড়া দেয়।

হতবাক এশীয় নেতারাও

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক টুইট বার্তায় বলেছেন, প্রিয় বন্ধু শিনজোর আবে ওপর হামলায় আমি গভীরভাবে ব্যথিত। তার পরিবার, দেশের জনগণের প্রতি সহানুভূতির কথাও উল্লেখ করেন মোদি। আবের জন্য প্রার্থনা করছেন বলেও তিনি টুইট পোস্টে জানান।

গুলির ঘটনাটিকে ‘অর্থনৈতিক সহিংসতা’ মন্তব্য করেছেন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং। ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন- আবে সিঙ্গাপুরের ভালো বন্ধু। গত মে’তে টোকিও সফরের সময় আমি তাকে দুপুরের খাবারে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম। তার সুস্থতা কামনা করছি।

আবেকে গুলির ঘটনায় নিন্দা, ক্ষোভ ও তার পরিবারের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী কেভিন রুড, ফিলিপাইনের পররাষ্ট্র সচিব এনরিক মানালো, ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেতনো মারসুদি, মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন আবদুল্লাহসহ আরও অনেকেই।

শুক্রবার (৮ জুলাই) জাপানের স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আবেকে গুলি করা হয়। সঙ্গে সঙ্গেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। পেছন থেকে তাকে গুলি করা হয়। এ ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ হয়েছে।

সূত্র : এপি

সোনালী/জেআর