ঢাকা | মে ২১, ২০২৪ - ৬:৫৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

নরসিংদীতে যুবকের দুই হাতের কব্জি কেটে দেওয়ার অভিযোগ

  • আপডেট: Tuesday, June 28, 2022 - 1:00 pm

অনলাইন ডেস্ক: নরসিংদীর পলাশে পারিবারিক কলহের জের ধরে হাদিউল মিয়া (২৫) নামে এক যুবকের দুই হাতের কব্জি কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তারই আপন চাচি ও ফুপার বিরুদ্ধে।

গতকাল সোমবার দিবাগত ভোর চারটার দিকে পলাশের নোয়াকান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত হাদিউল নরসিংদী শিবপুর থানার মোর্শেদ মিয়ার ছেলে।

আহতের পরিবার ও জেলা হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত কিছুদিন পূর্বে হাদিউল ও তার চাচির বাকবিতণ্ডা হয়। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে হাদিউল তার চাচিকে মারধর করেন। এতেে আহত অবস্থায় তার চাচি বেশ কিছুদিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছিলেন। তাছাড়া হাদিউল কিছুদিন যাবত চাকরির খোঁজ করছিলেন। চাচির সাথে ঝগড়ার আগে হাদিউল তার ফুপার কাছে চাকরির জন্য খোঁজ করছিলেন।

সোমবার সন্ধ্যায় তার ফুপা তাকে চাকরির কথা বলে তার নিজ বাড়ি নোয়াকান্দা গ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে হাদিউল রাত্রিযাপন করে। পরে ভোর চারটার দিকে হাদিউলকে তার ফুপা পার্শ্ববর্তী একটা ঝোপে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে হাত পা মুখ বেঁধে তার দুই হাতের কবজি কেটে দেয়।

পরে ভোর বেলায় হাদিউল এর চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে।

পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্মদ ইলিয়াছ বলেন, আহতকে উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে থানায় এখনো কেউ মামলা করেনি। থানায় মামলা হলে পরবর্তীতে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিব।

সোনালী/জেআর