ঢাকা | মে ২৩, ২০২৪ - ২:১৭ পূর্বাহ্ন

অপহরণ-ধর্ষণ মামলার আসামি ছেলেকে পুলিশে দিলেন বাবা

  • আপডেট: Sunday, June 26, 2022 - 1:49 pm

অনলাইন ডেস্ক: মেহেরপুরে এক কিশোরীকে (১৩) অপহরণ ও ধর্ষণ মামলার আসামি ছেলে সাহাবুল ইসলামকে পুলিশের হাতে তুলে দিলেন বাবা আহাদ আলী।

সাহাবুল মেহেরপুর সদর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের আহাদ আলীর ছেলে।

পেশায় তিনি ব্যাটারিচালিত আটোবাইক চালক।

মেহেরপুর সদর থানা পুলিশ আজ রোববার (২৬ জুন) সকালে সাহাবুলকে গ্রেফতার দেখান।

সাহাবুল ইসলাম একই উপজেলার বন্দর গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক কিশোরীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে গত ২৫ মে ভাগিয়ে নিয়ে পালিয়ে যান।
এ ঘটনায় ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগ এনে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩ এর ৭/৩০/৯(১) ধারায় মেহেরপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর ২৬, তারিখ ২৫/০৬/২০২২।

মামলার অন্য আসামি হলেন- প্রধান আসামি সাহাবুল ইসলামের ছোট বোন একই গ্রামের সাখাওয়াত হোসেনের স্ত্রী স্বপ্না খাতুন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাবীব জানান, মামলা হওয়ার পর আসামির মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে মেহেরপুর শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার ও ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়েছে।

আটক সাহাবুল ইসলামকে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে মেহেরপুর জেল হাজতে ও ভিকটিমকে আদালতে নেওয়া হয়েছে। এর আগেও এই আসামি আরেকটি মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে গেছিল।

সাহাবুলের বাবা আহাদ আলী জানান, আমার ছেলে ও মেয়ে পরকীয়া করে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। পরে সদর থানা পুলিশ তাদের হাজির করে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। গত শনিবার (২৫ জুন) ঢাকা থেকে তাদের দু’জনকে এনে মেহেরপুর সদর থানা পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছি।

সোনালী/জেআর