ঢাকা | জুলাই ১৭, ২০২৪ - ৭:১৯ অপরাহ্ন

চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে ৮৫ শতাংশ নতুন কর্মসংস্থান হবে: তথ্য সচিব

  • আপডেট: Thursday, June 16, 2022 - 10:15 pm

 

স্টাফ রিপোর্টার: তথ্য ও সম্প্রচার সচিব মো. মকবুল হোসেন বলেছেন, চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের চ্যালেঞ্জ তথ্য মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টদের অনেক বেশি। এজন্য আমাদের মানসিক প্রস্তুতি নিতে হবে। এই বিপ্লবে অনেকের কর্মসংস্থান বন্ধ হবে, আবার নতুন কর্মসংস্থানও তৈরি হবে। বিপ্লবের ফলে ৮৫ শতাংশ নতুন কর্মসংস্থান হবে; যা আমরা এখনও জানিনা। এই বিষয়গুলো সাধারণ মানুষকে জানাতে হবে। এজন্য তথ্য মন্ত্রণালয়কে বেশি দায়িত্ব পালন করতে হবে।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে রাজশাহী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে বৃহস্পতিবার সকালে অনুষ্ঠিত উচ্চ আদালতে বিচারাধীন সরকারি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট মামলা চিহ্নিতকরণ, করণীয় এবং মামলা পরিচালনায় আইনি ধাপ বিষয়ক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জেলা পর্যায়ে কর্মরত তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়াধীন বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের সরকারি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট মামলা চিহ্নিত করা ও মামলা পরিচালনার আইনি পদক্ষেপসমূহ অবহিতকরণের উদ্দেশ্যে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় তথ্য ও সম্প্রচার সচিব বলেন, হাইকোর্ট বা নিম্ন আদালতে সরকারকে বিবাদী করে কোনো মামলা হলে বিভিন্ন ধাপে তা এগিয়ে নিতে হয়। কোনো মামলায় সরকারের স্বার্থ জড়িত থাকলে সেটা তথ্য উপাত্ত দিয়ে যতটা সুন্দরভাবে উপস্থাপিত হবে, তার উপর নির্ভর করে মামলায় জেতা না জেতা।

তিনি বলেন, সরকারে আমরা যারা নিযুক্ত আছি, সকল ক্ষেত্রে আমাদের কর্মদক্ষতা ভালো কিন্তু মামলার ক্ষেত্রে আমরা পিছিয়ে আছি। কারণ এ বিষয়ে আমাদের অভিজ্ঞতা কম। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় আয়োজিত এই প্রশিক্ষণ কর্মশালা এ মন্ত্রণালয়াধীন অফিসসমূহের কর্মকর্তাদের আত্মবিশ^াস বাড়াবে।

ভূমি ব্যবস্থাপনা বিষয়ে তথ্য ক্যাডারের কর্মকর্তাদের কোনো প্রশিক্ষণ নেই উল্লেখ করে তথ্য ও সম্প্রচার সচিব বলেন, এর ফলে এখনও অনেক স্থানে এ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন অফিসসমূহের জমি জেলা প্রশাসকের নামে রয়ে গেছে। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে জীবনের সকল পর্যায়ে সৎ থাকার আহ্বান জানান।

কর্মশালায় গণযোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. জসীম উদ্দিন, জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের আইন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান গাজি উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ বেতার, বাংলাদেশ টেলিভশন ও রাজশাহী বিভাগের সকল জেলা তথ্য অফিসের কর্মকর্তারা এ কর্মশালায় অংশ নেন।

এদিেেক রাজশাহীতে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার সচিব মো. মকবুল হোসেন। বৃহস্পতিবার বিকালে রাজশাহী সার্কিট হাউজে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় তথ্য ও সম্প্রচার সচিব বলেন, বিভাজন যেখানে বেশি সেখানে দাবি আদায় সহজ হয় না। তথ্য অধিদফতরকে সাংবাদিকদের তালিকা প্রস্তুতের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাংবাদিকদের তালিকা করা একটা কঠিন বিষয়। আপনারা যারা প্রকৃত সাংবাদিক তারাই এ তালিকা তৈরি করে দেবেন। প্রকৃত সাংবাদিকদের হলুদ সাংবাদিকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে।

তিনি আরও বলেন, দেশে এখন প্রায় ১৩০০-এর বেশি পত্রিকা রয়েছে। যথাযথভাবে পত্রিকা প্রকাশ না করায় ইতিমধ্যে প্রায় ৩০০ পত্রিকার প্রকাশনা বাতিল করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণযোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. জসীম উদ্দিন। মতবিনিময় সভায় বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।