ঢাকা | জুলাই ১৪, ২০২৪ - ৯:৫৫ অপরাহ্ন

তরুণীর ভাইকে মারধর, এলাকাছাড়া অভিযুক্তরা

  • আপডেট: Sunday, June 12, 2022 - 1:39 pm

অনলাইন ডেস্ক: কক্সবাজারের খুরুশকুল বেড়িবাঁধ এলাকায় বোনকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ভাইকে বেধড়ক মারধর করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

এর আগে গত ৩১ মে বিকেলের দিকে খুরুশকুল আশ্রয়ন প্রকল্পের বেড়িবাঁধে এ ঘটনা ঘটে। যদিও ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে শনিবার (১১ জুন)।

ভিডিওতে দেখা যায়, দুর্বৃত্তদের হাত থেকে বাঁচাতে ভাইটি তার বোনকে আগলে রেখেছেন। ওই অবস্থায় দুর্বৃত্তরা তাকে মারধর করছিল। একপর্যায়ে বোনকে নিয়ে মাটিতে ঢলে পড়ে ভাই। তবে তাতেও থামেনি দুর্বৃত্তদের মারধর।

ভুক্তভোগীর ভাই আব্দুল মোনাফ জানান, খুরুশকুল আশ্রয়ণ প্রকল্পে একটি ফ্ল্যাটে থাকেন তারা। গত ৩১ মে তার বোন মামার বাড়ি যাচ্ছিল। পথে খুরুশকুল মনুপাড়ার জামাল ও রায়হান তার বোনকে উত্ত্যক্ত করে। এ সময় তার বোন ঘরে ফিরে যেতে চাইলে তারা পথ আটকে রাখে। দূর থেকে ঘটনাটি দেখতে পান মোনাফ।

তিনি বলেন, একপর্যায়ে আমি সেখানে ছুটে যাই। তারা কেন এমন করছে জিজ্ঞেস করি। সঙ্গে সঙ্গেই তারা আমার বোনকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে। তখন আমি বোনকে জড়িয়ে ধরি। একপর্যায়ে তারা আমাকেও মারধর শুরু করে।

মোনাফের অভিযোগ, সেদিন আহত হয়ে হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন তিনি। পরে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় অভিযোগও দেন। কিন্তু পুলিশ এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। উল্টো দুর্বৃত্তরা তাদের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। যদিও শনিবার এ ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে অভিযুক্তরা সবাই এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন।

জানা গেছে, এ ঘটনার মূল হোতা কিশোর গ্যাং লিডার মোহাম্মদ জামাল। খুরুশকুল মনু পাড়ায় তার বাড়ি। চুরি, ছিনতাইসহ নানা অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। গত ২৫ মে খুরুশকুল ব্রিজ এলাকায় লোকমান হাকিম আজাদ নামে একজনকে ছুরিকাঘাত করে মোবাইল, মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার নেতৃত্বে ছিলেন এই জামাল।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুনিরুল গিয়াস বলেন, ভাইরাল ভিডিওটি আমাদের নজরে এসেছে। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সোনালী/জেআর