ঢাকা | এপ্রিল ১৯, ২০২৪ - ৮:০৬ পূর্বাহ্ন

স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বাকে পেটালেন বখাটে

  • আপডেট: Wednesday, June 8, 2022 - 1:49 pm

অনলাইন ডেস্ক: লক্ষ্মীপুরে দুই মোটরসাইকেল চালকের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে সালাউদ্দিন (৩১) নামে এক মোটরসাইকেল চালক ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী নাছিমা আক্তারকে (২৫) মারধরের অভিযোগ উঠেছে ইমন হোসেন নামে এক বখাটের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (৭ জুন) বিকেলে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার নুড়িগাছতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত অন্তঃসত্ত্বা নাছিমা ও তার স্বামী সালাউদ্দিনকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

নাছিমা আক্তার সদর উপজেলার পশ্চিম সহিদপুর গ্রামের সালাউদ্দিনের স্ত্রী। তিনি লাহারকান্দি ইউনিয়নের বাইশমারা ইসলামী ব্যাংক এজেন্ড শাখার অফিস সহকারী হিসেবে কর্মরত। অপরদিকে সালাউদ্দিন একই এলাকার সহিদ উল্ল্যাহর ছেলে।

অভিযুক্ত ইমন হোসেন পৌরসভার লাহারকান্দি গ্রামের মো. জাহাঙ্গীরের ছেলে ও স্থানীয় ওয়ার্ড ছাত্রলীগের কর্মী বলে জানা গেছে।

রাস্তায় সাইড না দেওয়াকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে ঝগড়ার সূত্রপাত হয়।

হাসপাতালে আহত অবস্থায় নাছিমা আক্তার জানান, বিকেলে স্বামীর সঙ্গে তিনি কর্মস্থল থেকে মোটরসাইকেলে করে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। পথে তারা লাহারকান্দির বাইশমারার সমর উদ্দিন বাড়ির সামনে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলকে সাইড দেওয়া নিয়ে ওই মোটরসাইকেলের চালক ইমনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে চালক ইমন নাছিমা আক্তারের স্বামী সালাউদ্দিনকে কিল-ঘুষি মারেন। স্থানীয় লোকজন তাকে থামিয়ে উভয়কে মিলমিশ করে দেন। তাতেও ক্ষান্ত হয়নি ইমন। অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করতে থাকেন।

নাছিমা আরও জানান, পরবর্তীতে ইমন মোটরসাইকেল নিয়ে তাদের পেছনে পেছনে যায়ন। তারা পৌরসভার নুড়িগাছতলা এলাকায় এলে ইমন ও তার সঙ্গে থাকা ৭-৮ জন বখাটে তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে তার পেট ও শরীরে আঘাত লাগে এবং তার স্বামী সালাউদ্দিনের মাথা, পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করা হয়। তিনি ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলেও জানান।

নাছিমার ভাই জহির উদ্দিন বলেন, ইমন উচ্ছৃঙ্খল প্রকৃতির ছেলে। সে সবসময় ১০-১৫ জনের গ্রুপ নিয়ে রাস্তায় চলাচল করে। তাছাড়া ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকায় স্থানীয়রা ভয়ে ওর কোনো অন্যায়ের প্রতিবাদ কনে না।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোস্তফা কামাল বলেন, বিষয়টি নিয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনালী/জেআর