ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১১:২৪ অপরাহ্ন

চারঘাটে পাট চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের

  • আপডেট: Wednesday, June 1, 2022 - 10:19 pm

মোজাম্মেল হক, চারঘাট থেকে: চারঘাট উপজেলায় পাট চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের। গত বছরের তুলনায় চলতি মৌসুমে চারঘাট উপজেলায় পাট চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে।

প্রায় ২০ বছর পুর্বে পাট চাষের উপর তেমন চাহিদা ছিলনা কৃষকদের। কারন আগে কৃষকরা বৈশাখ মাসে পাট বপন করতো, আর আশ্বিন মাসে পাট কাটত। ৬ মাস সময় লাগত পাট উঠতে, তবে তিতা পাট উঠতে কম সময় লাগত, তিতা পাট কেটে রোপা আমন ধান লাগানোর সুযোগ থাকত।

কিন্তু বর্তমানে আধুনিক প্রযুক্তিতে পাট চাষ করে অনেক লাভবান হচ্ছে কৃষকরা। কারন আগের যুগে জমিতে সেচ দেওয়ার তেমন সুবিধা ছিলনা। বৈশাখ মাসে বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করতে হত, কোন কোন সময় জৈষ্ঠ মাসে বৃষ্টি হত। কিন্তু বর্তমানে সেচ সুবিধা হওয়ায় ফাল্গুন চৈত্র মাসে রবিশষ্য ঘরে তোলার সাথে সাথে জমিতে সেচ দিয়ে পাট বুনতে পারছে। ফলে আষাঢ় শ্রাবন মাসে পাট কেটে রোপা আমন ধান লাগানোর সুযোগ পাচ্ছে , তাছাড়া মুল্যও ভাল পাচ্ছে।

চারঘাট উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, গত বছর চারঘাট উপজেলায় ২ হাজার ১শ’ ৩৭ হেক্টর জমিতে পাট চাষ করা হয়েছিল, কিন্তু চলতি মৌসুমে উপজেলায় ৩ হাজার ৪শ ১৭ হেক্টর জমিতে পাট চাষ করা হয়েছে। কেজিপুর গ্রামের কৃষক মকবেল আলী বলেন, গত বছর পাটের মুল্য বেশী পাওয়ায় চলতি মৌসুমে দ্বিগুন জমিতে পাট চাষ করেছে। কারন আষাঢ় মাসের শেষের দিকে পাট কেটে রোপা আমন লাগানো যাবে। বানেশ্বর এলাকার পাট ব্যবসায়ী মুখতার হোসেন বলেন, গত বছর পাটের মুল্য ছিল সর্ব্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা মন, যার কারনে পাট চাষে ঝুকেছে কৃষকরা, কিন্তু বর্তমানে পাটের সর্ব্বোচ্চ মুল্য ২ হাজার ৫শ টাকা।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ লুৎফুন নাহার বলেন, তুলনামুলক ভাবে পাট চাষে খরচ কম এবং বাজার মুল্য বেশী হওয়ায় গত বছরের তুলনায় চলতি মৌসুমে পাট চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে।