ঢাকা | এপ্রিল ১৫, ২০২৪ - ৫:৫০ পূর্বাহ্ন

রাজশাহীতে আমান গ্রুপের তিন ভাইয়ের জামিন নাকচ

  • আপডেট: Sunday, May 29, 2022 - 8:29 pm

 

স্টাফ রিপোর্টার: যমুনা ব্যাংকের প্রায় ৮৮ কোটি টাকা ঋণখেলাপির মামলায় গ্রেপ্তার আমান গ্রুপের তিন কর্ণধারের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। রাজশাহী মহানগর দায়রা ও জজ আদালতের বিচারক ওএইচএম ইলিয়াছ হোসাইন রোববার দুপুর পৌনে ২টার দিকে এ আদেশ দেন।

গত ২৩ মে থেকে আমান গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল ইসলাম এবং দুই পরিচালক শফিকুল ইসলাম ও তৌফিকুল ইসলাম রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন। সেদিন রাজশাহীর অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে জামিন চাইলে বিচারক মো. রেজাউল করিম তা নামঞ্জুর এই তিন ভাইকে কারাগারে পাঠান।

রাজশাহী মহানগর দায়রা ও জজ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মুসাব্বিরুল ইসলাম জানান, কয়েকদিন আগে তিনজনের জামিন চেয়ে তাঁদের আইনজীবী আদালতে আবেদন করেন। রোববার এই জামিন আবেদনের শুনানি ছিল। শুনানিতে তিন আসামির পক্ষে কয়েকজন আইনজীবী ও ঢাকা থেকে আসা কয়েকজন ব্যারিস্টার অংশ নিয়েছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষে তিনি জামিনের বিরোধীতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আবেদন নাকচ করেন।

আমান গ্রুপের পরিচালক তৌফিকুল ইসলাম মেসার্স আরএসএন্ডটি ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী। তিনি এই প্রতিষ্ঠানের নামে যমুনা ব্যাংকের রাজশাহী শাখা থেকে প্রায় ৮৮ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিলেন। তাঁর এই ঋণের জামিনদার ছিলেন দুই ভাই রফিকুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম।

ঋণ নেওয়ার পর তাঁরা জাল জালিয়াতির মাধ্যমে বন্ধকি সম্পত্তি অন্যত্র হস্তান্তর করেন বলে অভিযোগ তোলে যমুনা ব্যাংক। এতে মেসার্স আরএসএন্ডটি ইন্টারন্যাশনালের ৮৮ কোটি টাকা খেলাপি ঋণ হয়ে যায়। এ কারণে ঋণ নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে যমুনা ব্যাংকের রাজশাহী শাখার পক্ষ থেকে ২০১৯ সালে নগরীর শাহমখদুম থানায় তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।