ঢাকা | এপ্রিল ২১, ২০২৪ - ৬:৫৭ পূর্বাহ্ন

খেলায় পরাজিত হয়ে বিজয়ী দলের ওপর হামলা, আহত ২৫

  • আপডেট: Saturday, May 21, 2022 - 1:59 pm

অনলাইন ডেস্ক: ফরিদপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফুটবল টুর্নামেন্টে পরাজিত দলের খেলোয়াড়রা বিজয়ী দলের খেলোয়াড়দের ওপর হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই হামলায় বিজয়ীদলের খেলোয়াডসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতদের ফরিদপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি আছেন বেশকয়েকজন খেলোয়াড়।

হামলায় আহত খেলোয়াড়রা হলেন- মো. নুর ইসলাম, মো. সোহান শেখ, রাসেল সিকদার, মো. পিয়াস মোল্লা, রাব্বি শেখ, শাহাদাত হোসেন, মো. শুভ খান, মো. মাসুদ ও মো. মিলন শেখ।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গিয়েছে, ফরিদপুর শহরের বাখুন্ডা এলাকায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে শুক্রবার বিকেল ৫টায় খেলাটি অনুষ্ঠিত হয়। সেমিফাইনাল খেলায় অংশ নেয় ডিক্রিরচর ইউনিয়ন ও কৈজুরী ইউনিয়ন একাদশ। খেলায় ডিক্রিরচর টাইব্রেকারে জিতে ফাইনালে ওঠে। খেলা শেষে ডিক্রিরচর ইউনিয়নের খেলোয়াড়দের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় প্রতিপক্ষের দর্শক-সমর্থকরা। এসময় তারা লোহার রড, কাঠের লাঠি দিয়ে বেদম পিটিয়ে আহত করে ডিক্রিরচর ইউনিয়নের খেলোয়াড়সহ সমর্থকদের। হামলাকারীদের হাত থেকে বাঁচতে খেলোয়াড়রা গাড়িতে অবস্থান নিলে তারা সেখানেও হামলা চালায়। এসময় খেলোয়াড়দের বহনকারী একটি বাস ভাঙচুর করা হয়।

এ বিষয়ে ডিক্রিরচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান মিন্টু বলেন, খেলা শেষে খেলোয়াড় ও সমর্থকদের ওপর হামলা চালায় প্রতিপক্ষের দর্শক-সমর্থকরা। আমার ওপর হামলা চালানোর চেষ্টা করা হয়। পরে স্থানীয়রা আমাকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেন।

তিনি বলেন, কৈজুরী ইউনিয়ন একাদশ ও তাদের সমর্থকদের হামলায় আমাদের দলের খেলোয়াড় ও সমর্থকসহ অন্তত ২৫ জন আহত হন।

এদিকে, আহত খেলোয়াড়দের দেখতে হাসপাতালে যান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিটন ঢালী। তিনি বলেন, যারা বিজয়ী খেলোয়াড় ও তাদের সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছে তাদের তথ্য ও ছবি আমাদের হাতে রয়েছে। হামলার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সোনালী/জেআর