ঢাকা | এপ্রিল ১৬, ২০২৪ - ১:০৮ পূর্বাহ্ন

‘শেখ হাসিনাকে সরানো সহজ নয়’

  • আপডেট: Tuesday, May 17, 2022 - 7:49 pm

স্টাফ রিপোর্টার: আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রাজশাহীতে আয়োজিত এক জনসমাবেশে বক্তারা বলেছেন, শেখ হাসিনা দেশে ফিরেছিলেন বলেই বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। তিনি ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়েছেন। তাই দেশের মানুষ শেখ হাসিনার সঙ্গেই থাকবেন। শেখ হাসিনা এক শান্তির প্রতীকের নাম। তাকে সরানো সহজ ব্যাপার নয়।

রাজশাহী জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নগরীর বাটার মোড় এলাকায় মঙ্গলবার বিকালে এ জনসমাবেশের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যখন প্রয়োজন মনে করে তখনই রাস্তায় শতসহস্র মানুষের ঢল নামাতে পারে। স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে এই কর্মসূচি সেটি আবার প্রমাণ করেছে।

লিটন বলেন, বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের সবাইকে হারিয়ে অভিমানে তাঁর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা দেশে না-ও ফিরতে পারতেন। বলতে পারতেন- গেলাম না দেশে। কিন্তু তাঁরা তা করেননি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের দেশ গড়তে তাঁরা ফিরে এসেছেন। বলেছিলেন, জীবন দিয়ে হলেও তিনি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ করব। এখন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সেসব স্বপ্নই পূরণ করছেন।

জনসমাবেশে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন দলের রাজশাহী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান যখন অবৈধ ক্ষমতা দখল করে গণতন্ত্র কেড়ে নিলেন, তখন আলোর দিশারী হয়ে দেশে ফিরেছিলেন শেখ হাসিনা। তিনি ফিরেছিলেন বলে দেশে গণতন্ত্র ফিরেছে। বঙ্গবন্ধু-জাতীয় চার নেতা হত্যার বিচার হয়েছে। দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে।

নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালের সভাপতিত্বে এই জনসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লায়েব উদ্দিন লাভলু ও মহানগরের যুগ্ম সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু। বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য বেগম আখতার জাহান, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার, সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা ও মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার।

সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন- রাজশাহী-৫ আসনের সাংসদ ডা. মুনসুর রহমান, সংরক্ষিত সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ আদিবা আনজুম মিতা, সাবেক প্রতিমন্ত্রী জিনাতুননেসা তালুকদার, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জাকিরুল ইসলাম সান্টু, নগরের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, জেলার সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্না প্রমুখ। জনাকীর্ণ এই সমাবেশে জেলা ও মহানগরের সকল ইউনিটের আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।