ঢাকা | এপ্রিল ১৯, ২০২৪ - ৭:০৬ অপরাহ্ন

শিশুদের যক্ষা নির্মূলে রাজশাহীতে সচেতনতামূলক পুতুল নাটক

  • আপডেট: Tuesday, May 17, 2022 - 7:41 pm

স্টাফ রিপোর্টার: ‘যক্ষা হলে নেইকো ভয়, সবাই মিলে করবো জয়’ -স্লোগান নিয়ে রাজশাহীতে যক্ষা নির্মূলে সচেতনতামূলক কর্মসূচি শুরু হয়েছে। পুতুল নাটক ও গম্ভিরা প্রদর্শনের মাধ্যমে জেলার ৯টি উপজেলায় ১৮ দিন ব্যাপি ৪৫টি প্রদর্শনীর মাধ্যমে চলবে এই কর্মসূচি। কর্মসূচির অনুষ্ঠানগুলো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি হাটবাজারেও অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্য দিয়ে সকলের মাঝে যক্ষা বিষয়ে নতুন করে সচেতন করে তোলা হবে।

এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার রাজশাহীর পবা উপজেলার ঘোলহাড়িয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যক্ষা বিষয়ক সচেতনতা মূলক কর্মসূচিতে পুতুল নাটক ও গম্ভিরা প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে স্কুলটির শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকরা অংশগ্রহণ করেন। প্রদর্শনী কেন্দ্রের পাশে যক্ষার প্রাথমিক লক্ষণ নির্ণয়ে একটি ভ্রাম্যমান কেন্দ্র স্থাপন করা হয়।

আয়োজকদের দেয়া তথ্য মতে, যক্ষা বিষয়ক ভ্রান্ত ধারণা ও যক্ষা নির্মূলে নানা প্রতিবন্ধকতা দূর করার উদ্দেশ্যে যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির অধীনে আইসিডিডিআর,বি পরিচালিত ইউএসএআইডি’স অ্যালায়েন্স ফর কমব্যাটিং টিবি ইন বাংলাদেশ (এসিটিবি) কার্যক্রমের আওতায় এই সচেতনতামূলক কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। এতে ‘জলপুতুল’ নামের একটি সংস্থার সদস্যরা অভিভাবক ও শিশুদের সচেতন করেন।

ক্যাম্পেইনে বিশেষভাবে সজ্জিত গাড়ির মাধ্যমে ভ্রাম্যমাণ নাটক প্রর্দশন করা হয়। বিনোদনমূলক পরিবেশে মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যেই রাজশাহীর জনপ্রিয় গম্ভীরা গানে নানা-নাতির খুনসুটির মাধম্যে পুতুল নাটকটি প্রর্দশন করা হয়। এর আগে স্বাস্থ্যবিধি মানতে শিশুদের মাস্ক দেওয়া হয় এবং তাদের মাঝে পুতুল রং করতে দেওয়া হয়।

জলপুতুল প্রকল্পের পরিচালক সাইফুল ইসলাম বলেন, বড়দের যক্ষার বিষয়টি মানুষ জানলেও শিশুদের বিষয়টি অনেকেই জানেন না; তাই শিশুদের যক্ষা নিমূর্লে সচেতন করতেই এই আয়োজন। তিনি আরও বলেন, শিশুদের আকৃষ্ট করা এবং বোঝার সুবিধার্থে পুতুল নাটকের মাধ্যমে প্রচরণা করা হচ্ছে এবং গম্ভীরা যেহেতু রাজশাহীর জনপ্রিয় গান তাই এই বিনোদনের মাধ্যমে মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির এই উদ্যোগ।