ঢাকা | এপ্রিল ১৫, ২০২৪ - ৫:০০ পূর্বাহ্ন

সাধারণ নাগরিকের ওপর গুলি চালানো হবে না: লঙ্কান সেনাপ্রধান

  • আপডেট: Thursday, May 12, 2022 - 2:32 pm

অনলাইন ডেস্ক: সাধারণ নাগরিকদের ওপর গুলি চালানোর কোনো নির্দেশনা শ্রীলঙ্কার সেনাদের দেয়া হয়নি বলে দাবি করেছেন দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল শভেন্দ্র সিলভা। খবর ডেইলি মেইলের।

নিজের দেয়া এক বিবৃতিতে জেনারেল শভেন্দ্র সিলভা সকলকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, শ্রীলঙ্কার সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা কোনো পরিস্থিতিতেই দেশের সাধারণ জনগণের ওপর গুলি চালানোর মতো অপমানজনক কর্মকাণ্ডের আশ্রয় নেবে না।

তীব্র অর্থনৈতিক সংকটে জর্জরিত শ্রীলঙ্কার রাজনৈতিক অবস্থা চরম অস্থিতিশীল। সাধারণ জনগণের বিক্ষোভ ঠেকাতে দেশে জারি করা আছে জরুরি অবস্থা। কারফিউ ঘোষণা করেও থামানো যাচ্ছে না জনগণের বিক্ষোভ। বিগত প্রায় এক মাস ধরে চলা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ ক্রমেই হয়ে উঠেছে সহিংসতাপূর্ণ।

সাধারণ জনগণের বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। মাহিন্দা রাজাপাকসের পদত্যাগের মাধ্যমে শ্রীলঙ্কার মন্ত্রিসভাও ভেঙে যায়। এরপরই সরকার দলীয় রাজনীতিবিদদের ওপর ক্রমাগত হামলা চালাতে থাকে বিক্ষোভকারীরা। সমগ্র দেশজুড়ে চলছে জ্বালাও-পোড়াও।

এমন পরিস্থিতির ভেতরেই মঙ্গলবার (১০ মে) হঠাৎ খবর পাওয়া যায়, বিক্ষোভকারীদের দেখামাত্র গুলির নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে।

জনগণের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করতে পারেন প্রেসিডেন্ট এমন দাবি তোলেন শ্রীলঙ্কার বিরোধী রাজনৈতিক দল-ফ্রন্টলাইন সোশ্যালিস্ট পার্টির নেতা ডুমিন্ডা নাগামুওয়া।

শ্রীলঙ্কার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাতে ডেইলি মিররের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়ত, দেশের উদ্ভূত পরিস্থিতির সুযোগে যারা সরকারি সম্পদের ক্ষতি করছে অথবা লুটপাট চালাচ্ছে, তাদের দেখামাত্র গুলি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে লঙ্কান সরকারের পক্ষ থেকে।

এমন ঘোষণার পরই অনেকেই ধারণা করেন, নিজের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে সেনাবাহিনীর সাহায্য নিতেপারেন প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া।

এর ভেতরেই দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, বিক্ষোভে সহিংসতাকারীদের চিহ্নিত করা হয়েছে এবং তাদের শিগগিরই আইনের আওতায় আনা হবে।

সোনালী/জেআর