ঢাকা | এপ্রিল ১৯, ২০২৪ - ৫:৪৮ অপরাহ্ন

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে অনুমোদনহীন ডায়াগনস্টিক সেন্টার!

  • আপডেট: Monday, May 9, 2022 - 10:13 pm

 

স্টাফ রিপোর্টার: ভুয়া চিকিৎসক, লাইসেন্সবিহীন হাসপাতাল এবং ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মাঝে মধ্যেই এ ধরনের প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ও সিলগালা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এরপরও বন্ধ হয়নি তাদের কার্যক্রম। এমনই একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে। এর নাম ‘লাইফ কেয়ার ডিজিটাল সেন্টার’। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কোন অনুমোদন ছাড়াই চলছে প্রতিষ্ঠানটি।

এলাকাবাসী পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে এব্যাপারে অভিযোগ করেছে। এরপরেও এখনও বন্ধ হয়নি এই প্রতিষ্ঠানের অবৈধ কার্যক্রম।

জানা যায়, উপজেলার হুজুরীপাড়া ইউনিয়নের দারুশা বাজারে পবা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অবস্থিত। এর প্রধান ফটকের সামনেই অনুমোদনহীন ‘লাইফ কেয়ার ডিজিটাল সেন্টার’ নামে প্রতিষ্ঠানটি প্রায় এক বছর আগে গড়ে উঠেছে। ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সরেজমিন অনুসন্ধানে গিয়ে চোখে পড়ে বিভিন্ন অনিয়মের চিত্র। প্যাথলজি ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অবস্থা আরও ভয়াবহ। যত্রতত্র ছোট ছোট ঘরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশেই চলছে সাধারণ মানুষের শরীরের নানান ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা।

প্যাথলজি ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোতে একজন মেডিকেল টেকনোলজিস্টের থাকার কথা থাকলেও খন্ডকালীন রেজিষ্টার্ড চিকিৎসক ল্যাব টেকনোলজিষ্ট কাজ করে থাকেন। এখানে দায়িত্ব পালন করেন হাতুড়ে লোকজন। ফলাফল প্রতিনিয়ত ভুল রিপোর্ট। এর প্রতিবাদে এলাকাবাসী পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অনুমোদনহীন ‘লাইফ কেয়ার ডিজিটাল সেন্টার এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

এব্যাপারে পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লসমী চাকমা বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি তদন্তের জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রাবেয়া বসরী এব্যাপারে বলেন, বিষয়টি তদন্তের জন্য তিন সদস্যের কমিটি করে দেয়া হয়। তারা তদন্ত প্রতিবেদন দিলে তা ইউএনও’র কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয়। তবে ডিজিটাল সেন্টারটি এখনও সরকারি অনুমোদন পায়নি।