ঢাকা | এপ্রিল ১৪, ২০২৪ - ১১:৩৩ অপরাহ্ন

পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ৪, আহত ১৩

  • আপডেট: Thursday, May 5, 2022 - 10:04 pm

 

সোনালী ডেস্ক: মান্দা, বড়াইগ্রাম ও বাঘা উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহত ও ১৩ জন আহত হয়েছে।

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি জানান, নওগাঁর মান্দায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১২ জন। তাঁদের মধ্যে ছয়জনকে পাঠানো হয়েছে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। মঙ্গলবার ঈদুল ফিতরের দিন ও পরদিন বুধবার বিভিন্ন যানবাহনে ঘুরতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হন তাঁরা। দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন, নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার কুমিরজৌল গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে তোতা (২১) ও মান্দা উপজেলার দুর্গাপুর (নলকুড়ি) গ্রামের বয়েন উদ্দিন (৫৫)।

পুলিশ সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের কুসুম্বা ফিলিং স্টেশন এলাকায় পিকআপ ভ্যানকে ওভারটেক করতে গিয়ে একটি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার শিকার হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তোতা (২১) নামে এক যুবক নিহত হন। আহত ময়নুল হক (২৫) ও বারিক হোসেনকে (২২) উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁদের দু’জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহত তোতার চাচা মাইনুল ইসলাম বলেন, ঈদের দিন দুপুরে খাওয়া-দাওয়া করে ভাতিজা তোতা বেড়ানোর জন্য মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। সন্ধ্যার পর তাঁর মৃত্যুর সংবাদ জানতে পারেন পরিবারের লোকজন।

অন্যদিকে বুধবার বেলা ১১টার দিকে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের চেয়ারম্যানের মোড়ের অদুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মৈনম দুর্গাপুর গ্রামের বয়েন উদ্দিন (৫৫) ও তাঁর স্ত্রী খালেদা বেগম (৫০) গুরুতর আহত হন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সন্ধ্যায় বয়েন উদ্দিন মারা যান। দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন, জনাব আলী (৪৫), রকি (১৯), জাহিদ হাসান (৩২), রফিকুল ইসলাম (২৮), মাসুদ রানা (২৬), রবিউল ইসলাম (১৮), দীপঙ্কর (৩২), ময়নুল ইসলাম (৪২), খালেদা বেগম (৫০), মুৃস্তাকিম (৪২) ও সোহেল রানা (৪৫)।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিনুর রহমান বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় তোতা নামে এক যুবক ঘটনাস্থলেই মারা যান। আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাঁর মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। অপর দুর্ঘটনায় আহত বয়েন উদ্দিন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

বাঘা প্রতিনিধি জানান, বাঘায় আড়াই বছরের এক শিশু সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে। ঈদের দ্বিতীয় দিন বুধবার বিকেলে আটোভ্যানের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা যায় আড়াই বছরের শিশু সানজিম হোসেন। সে বাঘা পৌরসভার জোত সায়েস্তা গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে।

নিহত শিশুর বাবা জানান, পরিবার নিয়ে বাঘা মাজার এলাকায় ঘোরার জন্য নিজ গ্রামের রাস্তায় যানবাহনের জন্য দাড়িয়ে ছিলেন। এ সময় রাস্তা পার হওয়ার সময় ভ্যানের চাকায় পড়ে গুরুতর আহত হয় সানজিম। তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্থাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি জানান, নাটোরের বড়াইগ্রামে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে হৃদয় গায়েন (১৭) নামে এক মোটর সাইকেল চালক নিহত ও তার বন্ধু আহত হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার নটাবাড়িয়া কালির ঘুন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত হৃদয় উপজেলার তিরাইল গ্রামের কোহিনুর গায়েনের একমাত্র ছেলে।

নিহতের স্বজনরা জানান, রোববার হৃদয় ঈদের পোষাক কেনার জন্য টাকা নিয়ে বনপাড়া বাজারে যায়। নতুন জামা-কাপড় কিনে সন্ধ্যায় মোটর সাইকেলে বাড়ি ফেরার পথে নটাবাড়িয়া কালিরঘুন এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটর সাইকেলটি রাস্তার পাশের গাছের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানার ওসি আবু সিদ্দিক বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।