ঢাকা | এপ্রিল ১৮, ২০২৪ - ৪:৩২ পূর্বাহ্ন

চেয়ারম্যানের ফাইল ছুঁড়ে ফেলার অভিযোগ তুলে সভা বয়কট

  • আপডেট: Wednesday, April 27, 2022 - 11:15 pm

 

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর পবা উপজেলা পরিষদের (ইউপি) মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভা বয়কট করেছেন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানেরা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লসমি চাকমা একজন ইউপি চেয়ারম্যানের ফাইল ছুঁড়ে ফেলেছেন অভিযোগ তুলে তারা সভা এবং সভার পর ইফতার অনুষ্ঠান বয়কট করেন।

উপজেলা পরিষদ বুধবার এ সভা ও ইফতার অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী। সভায় কমিটির সদস্য সচিব লসমি চাকমা উপস্থিত ছিলেন।

এ সভায় পবার আটটি ইউপির কোন চেয়ারম্যানই অংশ নেননি। এর কারণ জানতে চাইলে পবার বড়গাছি ইউপি চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন বলেন, ‘ইউএনও আমার একটা ফাইল ছুঁড়ে মেরেছেন। এ জন্য আমরা কেউ মিটিং বা ইফতারে অংশ নিইনি।’

শাহাদাৎ হোসেন বলেন, ‘ইউএনও’র টেবিলে আমার একটি ফাইল ছিল। গতকাল (মঙ্গলবার) দুপুরে একটা কাজে উপজেলা পরিষদে গেলে ইউএনও’র রুমে গিয়ে আমি বলি, ম্যাম আমার একটা মিটিং আছে। ফাইলটাই দুটো সই লাগবে। আপনি করে দিলে ভাল হয়। তখন তিনি ফাইলটা তাঁর টেবিলের ওপরেই ছুঁড়ে ফেলেন।’ কেন ছুঁড়ে ফেললেন জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, ‘বিমানবন্দরে নাকি তাঁর ভিআইপি প্রটোকল ছিল। সময় ছিল না। কিন্তু তিনি যে আচরণ করেছেন সেটা ঠিক করেননি।’

পবার আরও দুজন ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা সভা ও ইফতারে যোগ না দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। তারা জানান, চেয়ারম্যানের ফাইল ছুঁড়ে ফেলার কারণে কোনো ইউপি চেয়ারম্যানই সভায় অংশ নেননি। ইউএনও’র বিরুদ্ধে অসৌজন্যমূলক আচরণের আরও অভিযোগ তুলে ধরেন ইউপি চেয়ারম্যানরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইউপি চেয়ারম্যান মুঞ্জিল বলেন, ‘বিষয়টি প্রশাসনের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তা ছাড়াও আমাদের অভিভাবক স্থানীয় সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইয়াসিন আলীকে জানানো হয়েছে। তারা বিষয়টি দেখছেন। বিষয়টির সমাধান না হওয়া পর্যন্ত আমরা উপজেলার কোন সভায় যোগ দেব না।’

চেয়ারম্যানদের উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভা ও ইফতারে অংশ না নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে ইউএনও লাসমি চাকমা বলেন, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না। চেয়ারম্যানেরা অংশ নিয়েছেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, সবাই হয়ত আসেননি।