ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১১:২৫ অপরাহ্ন

মান্দায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ৪

  • আপডেট: Monday, April 25, 2022 - 11:02 pm

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দায় সরকারি কাজে বাধা ও লাঞ্ছিতের অভিযোগ এনে এক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।
মান্দা থানার সহকারী উপপরিদর্শক নান্নু মিয়া বাদি হয়ে রোববার রাতে মামলাটি দায়ের করেন। পরে ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে মামলার চার আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন, জামদই গ্রামের আব্দুর রহমান পিন্টু (৩৫) ও মাহাফুজুর রহমান (২০), গোড়রা গ্রামের মোশারফ হোসেন বাবু (৪২) এবং বৈদ্যপুর গ্রামের আবুল কালাম আজাদ (৩২)। সোমবার আদালতের মাধ্যমে তাঁদের নওগাঁ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশের ওই মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও ২০-৩০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ এপ্রিল জরুরি পরিসেবা ৯৯৯ থেকে ফোন দিয়ে জানানো হয় উপজেলার ভালাইন ইউনিয়নের জামদই গ্রামে আকবর আলী নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে রেখেছে প্রতিপক্ষরা। জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়েছে। এমন সংবাদে মান্দা থানার সহকারী উপপরিদর্শক নান্নু মিয়া সঙ্গীয় ফোর্সসহ আকবর আলীকে উদ্ধারের জন্য থানা থেকে জামদই গ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বৈদ্যপুর বাজারের চারমাথা মোড়ে পৌঁছালে ভালাইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফাসহ তাঁর কয়েকজন সহযোগী এএসআই নান্নু মিয়াকে দাঁড় করান। তাঁরা জানতে চান এত সকাল সকাল কোথায় ও কেন যাচ্ছেন। পথ আটকিয়ে চেয়ারম্যান ও তাঁর সাঙ্গপাঙ্গদের এসব প্রশ্নে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন এএসআই নান্নু মিয়া। এনিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও বাকবিতন্ডাও হয়।

মামলার বাদি নান্নু মিয়া বলেন, এসময় চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা ও তাঁর লোকজন অসৌজন্যমুলক আচরণ করেন। পথ আটকিয়ে ঘটনাস্থল জামদই গ্রামে যেতেও বাঁধা প্রদান করা হয়। বিষয়টি ওসিকে অবহিত করা হলে থানা থেকে অতিরিক্ত ফোর্স গিয়ে আমাকে সেখানে থেকে উদ্ধার করেন। ঘটনায় চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফাসহ তাঁর সহযোগীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছি।

এ প্রসঙ্গে জানতে ভালাইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দেওয়া হলেও তা রিসিভ হয়নি।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিনুর রহমান বলেন, সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশের সঙ্গে অসৌজন্যমুলক আচরণের অভিযোগ এনে এএসআই নান্নু মিয়া ভালাইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফাকে প্রধান আসামি করে মামলা করেছেন। মামলায় চার আসামিকে গ্রেপ্তার করে সোমবার নওগাঁ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।