ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১১:১৬ অপরাহ্ন

একমাস পর নিমঘুটু গেলেন বিএমডিএ চেয়ারম্যান

  • আপডেট: Wednesday, April 20, 2022 - 8:50 pm

স্টাফ রিপোর্টার: সেচের পানি না পেয়ে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার নিমঘুটু গ্রামের দুই সাঁওতাল কৃষকের আত্মহত্যার প্রায় এক মাস পর সেখানে গিয়েছেন গভীর নলকূপের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিএমডিএ) চেয়ারম্যান বেগম আখতার জাহান। বুধবার বেলা ১১টার দিকে বিএমডিএ কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে তিনি ওই গ্রামে যান।

সংরক্ষিত নারী আসনের সাবেক সাংসদ আখতার জাহান প্রথমেই আত্মহত্যা করা কৃষক রবি মারান্ডির বাড়ি যান। এ সময় বাড়িতে শুধু রবির মা দলিনা মুর্মু ছিলেন। বিএমডিএ চেয়ারম্যান তাঁকে সমবেদনা জানান। বলেন, পানি নিয়ে সমস্যার কথা তারা জানতে পারলে ব্যবস্থা নিতেন। এখন রবি চলে গেছে। তবে বিএমডিএ তার পরিবারের পাশে থাকবে।

দলিনা মুর্মু এ সময় অঝোরে কাঁদতে থাকেন। বিএমডিএ চেয়ারম্যান এ সময় দলিনা মুর্মুকে বিএমডিএ’র পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেন। বলেন, দুই কৃষকের আত্মহত্যার ঘটনায় পরিবার যে মামলা করেছে তা আইনের গতিতেই চলবে। তবে দুই পরিবারের পাশে আছে বিএমডিএ। এ সময় দলিনা মুর্মুকে একটি বয়স্কভাতার কার্ড করে দেওয়ার জন্যও তিনি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান বেলাল উদ্দিন সোহেলকে বলে দেন।

এরপর আখতার জাহান পাশেই আত্মহত্যা করা আরেক কৃষক অভিনাথ মারান্ডির বাড়ি যান। তবে বাড়িতে কেউ ছিলেন না। অভিনাথের বাড়ির পাশে তার মায়ের বাড়িতেও কাউকে পাওয়া যায়নি। তাদের বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় দুপুর পর্যন্ত বিএমডিএ চেয়ারম্যান দেওপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান বেলাল উদ্দিন সোহেলের অফিসে গিয়ে বসেন। তবে সে সময় পর্যন্ত অভিনাথের পরিবারের সদস্যরা বাড়ি ফেরেননি। তাই অভিনাথের স্ত্রী রোজিনা হেমব্রমকে সহায়তার ৫০ হাজার টাকা বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য ইউপি চেয়ারম্যানকে দেন বিএমডিএ চেয়ারম্যান।

গত ২৩ মার্চ অভিনাথ মারান্ডি ও তাঁর চাচাতো ভাই রবি মারান্ডি বিষপান করেন। এতে তাঁদের মৃত্যু হয়। পরিবারের অভিযোগ, বিএমডিএ’র গভীর নলকূপ থেকে বোরো ধানের খেতে পানি দেওয়া হচ্ছিল না দুই কৃষককে। তাই তারা বিষপান করেন। এ নিয়ে থানায় দুই পরিবার আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করেছে। পুলিশ গভীর নলকূপের অপারেটর সাখওয়াতকে গ্রেপ্তার করেছে। বিএমডিএ সেদিনই তাকে চাকরিচ্যুত করেছে। গত ১৬ এপ্রিল দুই কৃষকের মরদেহের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেয়েছে পুলিশ। এতে বলা হয়েছে, দুই কৃষকেরই মৃত্যু হয়েছে ‘অর্গানো ফসফরাস যৌগ’ নামের এক ধরনের কীটনাশক পানে।