ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২৪ - ৫:১৬ পূর্বাহ্ন

স্ত্রীর সঙ্গে গল্প করার সময় ১৩ মামলার আসামিকে কুপিয়ে খুন

  • আপডেট: Friday, April 15, 2022 - 2:42 pm

অনলাইন ডেস্ক: নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কুমড়ি গ্রামের হত্যাসহ ১৩টি মামলার আসামি সোহেল খানকে (৪০) নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার ভাটপাড়া গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে শুক্রবার সকালে নড়াইল সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নের কুমড়ি গ্রামের বদিয়ার খান ওরফে কানা বদিয়ারের ছেলে সোহেল খান গ্রেফতার ও প্রতিপক্ষের হামলার ভয়ে দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিলেন। তিনি গোপনে বৃহস্পতিবার শ্বশুরবাড়ি ভাটপাড়া গ্রামের হাসান মুন্সির বাড়িতে আসলে তার উপস্থিতি এলাকায় জানাজানি হয়ে যায়।

ঘটনার সময় বিদ্যুৎ না থাকায় ঘরের বাইরে উঠানে তিনি স্ত্রীর সঙ্গে বসে গল্প করছিলেন। এ সময় ১০/১২ জন দুর্বৃত্ত ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে ঘিরে ফেলে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় এলোপাথাড়ি কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে চলে যান। হামলার সময় সোহেলের স্ত্রী রিজিয়া খানম (৩০) আহত হন।

নিহত সোহেলের নামে দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান পলাশ, দিঘলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ জহিরুল ইসলাম রেজওয়ান, যুবদল নেতা তনু ফকিরসহ ৩টি হত্যা, অস্ত্র, ডাকাতি ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে লোহাগড়া ও নড়াগাতি থানায় ১৩ মামলা রয়েছে। তিনি পুলিশের তালিকাভুক্ত আসামি।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবু হেনা মিলন জানান, মৃতদেহ শুক্রবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। খুনের সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত ও আটকের চেষ্টা চলছে। নড়াইলের পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সোনালী/জেআর