ঢাকা | জুলাই ২৩, ২০২৪ - ১:২০ পূর্বাহ্ন

যাকাত দেওয়ায় দেশে সপ্তম রাজশাহী

  • আপডেট: Sunday, April 10, 2022 - 9:33 pm

স্টাফ রিপোর্টার: ‘সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে সরকারি যাকাত ফান্ডে যাকাত প্রদানের অর্থনৈতিক গুরুত্ব ও তাৎপর্য’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ইসলামী ফাউন্ডেশন রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইসলামী ফাউন্ডেশন রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক মুহাম্মদ জালাল উদ্দিন এঁর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ও জেলা যাকাত কমিটির সভাপতি আব্দুল জলিল। সভায় জানানো হয়, সারা দেশের যাকাত প্রদানে ৬৪ জেলার মধ্যে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে রাজশাহী। ২০২১ সালে রাজশাহী জেলা ষষ্ঠ হয়েছিলো।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) রাজশাহীর যুগ্ম পরিচালক সানোয়ার হোসেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) সাবিহা সুলতানা,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু সালেহ মো. আশরাফুল আলম, রাজশাহী জেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসারবৃন্দ ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে যাকাত বোর্ড রাজশাহী জেলা কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল বলেন, যাকাত মানে পরিশুদ্ধকরণ। যা ইসলামের পঞ্চস্তম্ভের অন্যতম। সাধারণত ৫২.৫ তোলা রূপা বা ৭.৫ তোলা স্বর্ণের মালিক হলে যাকাত দিতে হবে। পবিত্র কোরআনে যাকাত বণ্টনের নির্ধারিত আটটি খাত রয়েছে। পরিকল্পিতভাবে যাকাত প্রদানে দারিদ্র বিমোচনে ভূমিকা রাখবে। একই সাথে সুদমুক্ত অর্থনীতিক ব্যবস্থা তৈরিতেও যাকাতের ভূমিকা রয়েছে।

জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল আরো বলেন, ইতোমধ্যে আমরা যাকাত বোর্ড কমিটির সভা করেছি। জেলার সকল উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তাগণ সভা করছেন। আমরা প্রচারণা করে যাচ্ছি। রাজশাহী বড় জেলা। সমাজের বৃত্তবান মানুষরা যদি এগিয়ে আসেন। ইনশাআল্লাহ আমরা ভবিষ্যতে সারাদেশে যাকাত প্রদানে প্রথম হতে পারবো।

ইসলামী ফাউন্ডেশন রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক মুহাম্মদ জালাল উদ্দিন বলেন, রাজশাহীর ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের সহযোগিতায় রাজশাহী কার্যালয় এই বছর যাকাত আদায়ে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে। জেলা যাকাত বোর্ডের প্রদান জেলা প্রশাসকের সার্বিক নির্দেশনায় এ যাকাত আদায় হয়ে থাকে। করোনা পরবর্তী এ সময়েও আমরা যাকাত আদায়ের কাজ করছি।