ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২৪ - ৪:২৪ পূর্বাহ্ন

বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে জরুরি পদক্ষেপ নিন

  • আপডেট: Saturday, April 9, 2022 - 11:30 pm

একদিকে চৈত্রের দাবদাহ অন্যদিকে লোডশেডিং। এই রোজার মাসে ইফতারি- সেহরির সময়ও অনেক স্থানে বিদ্যুৎ না থাকায় মানুষ অতিষ্ঠ। বিদ্যুতের অভাবে সেচ দিতে না পেরে বোরো চাষিরা আবাদ নিয়ে আশঙ্কায় পড়েছেন। ক্ষুব্ধ কৃষক পল্লিবিদ্যুৎ অফিস ঘেরাও করে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দাবি তুলেছেন। নওগাঁর মান্দার পর এবার রাজশাহীর তানোর উপজেলায় মাত্রাতিরিক্ত লোড শেডিংয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাওয়ের ঘটনা ঘটেছে।

বোরো মৌসুমের শুরু থেকেই সেচ সঙ্কটে বিপাকে পড়েছে কৃষক। তার ওপর রোজার শুরুতে তারাবির নামাজ, সেহরি ও ইফতারির সময়ও লোডশেডিংয়ে মানুষের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর তানোরের দেবিপুর পল্লি বিদ্যুৎ অফিসের সামনে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দাবিতে বিক্ষোভ ও ঘেরাও করে একদল কৃষক। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। ঘটনাস্থল থেকে দুজনকে গ্রেফতার ও ছয়টি মোটরসাইকেল জব্দ করেছে পুলিশ। এর আগে নওগাঁ জেলার মান্দায়ও একই ধরনের ঘটনার কথা জানা গেছে।

তানোর পল্লি বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা গেছে, চাহিদার তুলনায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কম থাকায় লোড ম্যানেজমেন্ট করা হচ্ছে। ২৩ মেগাওয়াট চাহিদার বিপরীতে প্রতিদিন পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ১২ থেকে ১৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। ফলে স্থানীয়ভাবে করার কিছু থাকে না। তবে লোডশেডিংয়ে জনদুর্ভোগ ছাড়াও সেচের অভাবে বোরো ধান ক্ষতিগ্রস্ত হবার আশঙ্কা মেনে নেয়া কঠিন কৃষকের জন্য। তাই পরিস্থিতি বিবেচনা করে জরুরি ভিত্তিতে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার পদক্ষেপ নেয়া অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। বিষয়টি অগ্রাধিকার দাবি করে।