ঢাকা | জুলাই ১৯, ২০২৪ - ৫:৪৬ অপরাহ্ন

যুদ্ধ নয় শান্তির লক্ষ্যে ‘এগোতে চায়’ পাকিস্তানের বিরোধীরা

  • আপডেট: Friday, April 8, 2022 - 12:59 pm

অনলাইন ডেস্ক: পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে তোলা অনাস্থা প্রস্তাব নাকচ করা এবং প্রেসিডেন্টের পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়ার আদেশ অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি পার্লামেন্ট পুনর্বহালের নির্দেশ দিয়ে শনিবার এ প্রস্তাবে ভোট আয়োজনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ইমরান বিরোধীরা সরকার গঠনের ‘রূপরেখা’ তৈরি করে ফেলেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের।

বিরোধীদের একটি সূত্রের বরাতে খবরে বলা হয়, সরকার গঠন নিয়ে বিরোধীদের মধ্যে প্রাথমিক আলোচনা ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। নতুন সরকারে বিরোধী জোটের সব দলের প্রতিনিধিরা থাকবেন। বর্তমানে যদি নতুন সরকার গঠিত হয় বিবেচনা করা হচ্ছে, এর মেয়াদ অন্তত ছয় মাস বা এক বছর হতে হবে। এ সময়ের মধ্যে নির্বাচনী সংস্কার এবং জবাবদিহিতা সংক্রান্ত অন্য গুরুত্বপূর্ণ আইন পাস হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

নির্বাচনী এলাকার সীমানা সংক্রান্ত জটিলতা দূর করে নির্বাচন আয়োজনের প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য ইলেকশন কমিশন অব পাকিস্তানকে (ইসিপি) দিতে হবে যৌক্তিক সময়।

সংসদে বিরোধী জোটের নেতা শেহবাজ শরিফ, ধারণা করা হচ্ছে তিনিই প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী। শপথ নেওয়ার পর তিনি তার সরকারের সম্ভাব্য অগ্রাধিকারের তালিকায় কী কী থাকবে তা ঘোষণা করবেন।

সূত্র জানায়, নতুন সরকার মুদ্রাস্ফীতি এবং মুদ্রার অবমূল্যায়ন রোধে একটি অর্থনৈতিক নীতি প্রণয়ন করবে। যুদ্ধ নয় শান্তি— এ লক্ষ্যের ওপর ভিত্তি করে পররাষ্ট্র নীতিও পর্যালোচনা করে দেখা হবে। এতে গুরুত্ব পাবে সব দেশের সঙ্গে সমান সম্পর্ক বজায় রাখার বিষয়টি। এ ছাড়া সরকারের অগ্রাধিকার তালিকায় ত্রাণও স্থান পাবে।

বিরোধী জোটের সূত্রটি আরও জানায়, বিরোধীদের বিরুদ্ধে যে সব মামলা হয়েছে নতুন সরকার এ সব মামলা নিষ্পত্তির জন্য আইনি পদক্ষেপ নেবে। রাষ্ট্রপতি ও চার প্রদেশের গভর্নরদে বদলের জন্য সাংবিধানিক পন্থা বেছে নেওয়া হবে।

সূত্রটি জানায়, ইমরান খানের সরকারের নেওয়া সব সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা এবং পরিবর্তন করা হতে পারে। রাজনৈতিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে নির্বাসিত রাজনীতিবিদ নওয়াজ শরিফ এবং ইসহাক দারের দেশে ফেরা নিয়ে তাৎক্ষণিক কর্ম পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হবে।

সোনালী/জেআর