ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২৪ - ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন

রামেক হাসপাতালের সেবা নিয়ে মানুষের ধারণা পাল্টেছে: বাদশা

  • আপডেট: Thursday, April 7, 2022 - 10:13 pm

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা বলেছেন, একটা সময় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল নিয়ে মানুষের ভুল ধারণা ছিল। মানুষ মনে করত, হাসপাতালে আসলে চিকিৎসা পাওয়া যায় না। কিন্তু রামেক হাসপাতাল সম্পর্কে মানুষের এই ধারণা পাল্টেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামিম ইয়াজদানীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাতের সময় তিনি এ কথা বলেন। চিকিৎসা সেবা প্রদানে দেশের সেরা তিনটি হাসপাতালের মধ্যে রামেক হাসপাতাল একটি হওয়ার কারণে তিনি এ সময় হাসপাতালের পরিচালক এবং অন্যান্য চিকিৎসকদের ফুলের শুভেচ্ছা জানান।

সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা হাসপাতালটির পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। করোনাকালে চিকিৎসকদের অবদান তুলে ধরে তিনি বলেন, হাসপাতাল খুব সেনসিটিভ জায়গা। এখানে মানুষের জীবন মৃত্যুর বিষয় জড়িত। করোনার সময় এখানকার ডাক্তাররা যেভাবে সেবা দিয়েছেন, সেটি প্রশংসনীয়। করোনার সময়ে প্রায় ১৫ হাজারের উপর মানুষ সেবা পেয়েছেন বলে জেনেছি। এটি নিঃসন্দেহে একটি মহৎ কাজ।

তিনি আরও বলেন, রামেক হাসপাতালের সেবার মান বেড়েছে। তবে এখনো বেডের সংখ্যা কম। তাই বেডের সংখ্যা বাড়াতে হবে। যাতে প্রতিটি মানুষ চিকিৎসা সেবা পান। বেড বাড়ানোর জন্য আমরা চেষ্টা করব। হাসপাতাল যেন আরও রোগীবান্ধব হয় তার জন্যও কাজ করব।

এ সময় রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. নওশাদ আলী, নাক, কান ও গলা বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. সুব্রত সরকার, সার্জারি বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. এমএস রায়, মেডিসিন বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. পার্থ মণি ভট্টাচার্য, রেডিওলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক হাফিজুর রহমান, গাইনী বিভাগের প্রধান ডা. রোকেয়া খাতুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।