ঢাকা | মে ২৬, ২০২৪ - ৬:৫৮ অপরাহ্ন

৭৮ লাখ টাকা দামের হাতব্যাগ ব্যবহার করেন ইমরান খানের স্ত্রীর বান্ধবী!

  • আপডেট: Wednesday, April 6, 2022 - 11:06 am

অনলাইন ডেস্ক: দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দেশ পাকিস্তানে চরম রাজনৈতিক সংকট বিরাজ করছে। তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)-এর চেয়ারম্যান ও পাকিস্তানের অন্তর্বর্তী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এখন বিপদেই আছেন। পরবর্তী নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত স্বস্তি মিলছে না তার। এমন পরিস্থিতির মধ্যেই সামনে এলো ইমরান খানের স্ত্রী বুশরা বিবির ঘনিষ্ঠ বান্ধবী ফারাহ খানের একটি বিষয়। আর তা হলো- ফারাহ খানের হাতব্যাগের দাম ৯০ হাজার ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় ৭৮ লাখ টাকার বেশি!

বিরোধী দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) নেতা ও সাবেক অর্থমন্ত্রী মিফতাহ ইসমাইল এমন দাবি করেছেন। ফারাহ খানের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর এ দাবি করেন মিফতাহ ইসমাইল। তবে বুশরা বিবির ঘনিষ্ঠ সহযোগী ফারাহ খান ইতোমধ্যে দুবাই চলে গেছেন বলেও জানা গেছে। খবর জিও নিউজের।

একটি সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দিচ্ছিলেন মিফতাহ ইসমাইল। এ সময় সাবেক প্রধানমন্ত্রী শহীদ খাকান আব্বাসিও উপস্থিত ছিলেন। সে সময় মিফতাহ ইসমাইল বলেন, ফারাহ খান সম্পর্কে পিএমএল-এন এখন যা বলছে, পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) ত্যাগ করা নেতা আলিম খান তার সম্পর্কে আগে একই কথা বলেছিলেন।

এই পিএমএল-এন নেতা অভিযোগ করেন, পাঞ্জাবে সরকারি কর্মকর্তাদের বদলিতে ফার্স্ট লেডির এই ঘনিষ্ঠ সহযোগী ‘ঘুষ নিতেন’। কোথায় যেত সেই অর্থ? এ বিষয়ে তিনি আরও বলেন, পিটিআই দাবি করে আসছে, ফারাহ খান দুর্নীতি করতে পারেন না, কারণ তিনি সরকারি কর্মকর্তা বা দলীয় পদধারী ব্যক্তি নন। মিফতাহ ইসমাইল বলেন, ‘ফারাহ খান দুর্নীতিতে জড়াতে পারেন, কারণ তিনি সরকারি কর্মকর্তাদের স্ত্রীদের বান্ধবী। তিনি কেউ একজনের যোগাযোগের মাধ্যম।’

মিফতাহ ইসমাইল বলেন, গতকাল মঙ্গলবার থেকে ছড়িয়ে পড়া একটি ছবিতে অনেক দামি একটি ব্যাগসহ ফারাহ খানকে দেখা যাচ্ছে। মিফতাহ ইসমাইলের দাবি, ‘পাঞ্জাব সরকারের উড়োজাহাজ ব্যবহারের সময় ফারাহর সঙ্গে যে হাতব্যাগ ছিল, তার দাম ৯০ হাজার ডলার।’ স্থানীয় মুদ্রায় ব্যাগটির দাম প্রায় ১ কোটি ৬২ লাখ রুপি।

এদিকে সূত্রগুলো জিও নিউজকে জানিয়েছে, ফার্স্ট লেডির বান্ধবী ৩ এপ্রিল দুবাই পৌঁছেছেন। তার আসল নাম ফারাহ শাহজাদি। পাকিস্তানি পাসপোর্ট ব্যবহার করে একটি আন্তর্জাতিক এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে তিনি পাকিস্তান ছেড়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান। ‘গ্রেপ্তার–আতঙ্কে’ ফারাহ খান দেশ ছাড়েন বলে গুঞ্জন রয়েছে।

বিরোধীদের আনা অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ হওয়ার পরপরই গত রোববার প্রেসিডেন্টকে জাতীয় পরিষদ ভেঙে দিয়ে নতুন নির্বাচন আয়োজনের পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। জাতীয় পরিষদ ভেঙে দেওয়ার পর তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের আগপর্যন্ত তাকে দায়িত্ব চালিয় যেতে বলেছেন প্রেসিডেন্ট।

সোনালী/জেআর