ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১১:৫৪ অপরাহ্ন

লোকসানের ভয়ে পেঁয়াজ আমদানি করছেন না ব্যবসায়ীরা

  • আপডেট: Friday, April 1, 2022 - 2:22 pm

অনলাইন ডেস্ক: লোকসানের আশঙ্কায় ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করছেন না দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকেরা। এর ফলে বুধ ও বৃহস্পতিবার এই বন্দর দিয়ে দেশে পেঁয়াজ আমদানি হয়নি। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার ২৫০ টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে।

এদিকে বন্দরের কয়েকজন আমদানিকারক জানান, সরকার ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করবে না বলে ২৯ মার্চ পর্যন্ত পেঁয়াজের আমদানির (ইমপোর্ট পারমিট) শেষ সময়সীমা বেঁধে দেয়। এ অবস্থায় আমদানিকারকেরা রমজানে বাজার স্বাভাবিক রাখতে বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি শুরু করলে বাজারে সরবরাহ কয়েকগুণ বেড়ে যায়। ফলে দাম কমে বর্তমানে ১৬-১৭ টাকায় খুচরা বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। এক মাস আগেও এই পেঁয়াজ ৪০ টাকার ওপরে বেচা-কেনা হয়েছে।

আমদানিকারকেরা আরও জানান, রমজানে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হলে দাম বেড়ে যাবে এই আশঙ্কায় সরকার ২৮ মার্চ পেঁয়াজ আমদানির ওপর থেকে সময়সীমা তুলে নেয়। ফলে আমদানির অনুমতি চলমান থাকায় আমদানিকারকেরা তাদের আগের আমদানি করা পেঁয়াজ নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন। ফলে আমদানিকারকেরা গুদামে মজুত রাখা পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারছেন না। আবার পেঁয়াজ সংরক্ষণ না হওয়ার কারণে গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে। সব মিলে আমদানিকারকেরা আর্থিক ক্ষতির ভয়ে দুই দিন ধরে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করছেন না।

বাংলাহিলি বাজারের কয়েকজন ক্রেতা জানান, রমজানের আগে পেঁয়াজের দাম বাড়ে। এবার দাম সাধ্যের মধ্যে আছে। ভালো মানের পেঁয়াজ খুচরা বিক্রি হচ্ছে ১৮ টাকায়। এর কমেও কেনা যাচ্ছে।

বন্দরের আমদানিকারক গোলাম মোর্শেদ জানান, বাইরে থেকে পাইকার না আসায় বিক্রি করা যাচ্ছে না। সামান্য করে আশপাশের বাজারে পেঁয়াজ সরবরাহ করা হচ্ছে। সরকার যদি কিছু দিন আগে আমদানি অব্যাহত থাকবে এই ঘোষণা দিলে আমরা স্বাভাবিক গতিতে পেঁয়াজের আমদানি চলমান রাখতে পারতাম। তাহলে আমাদের লোকসান গুনতে হতো না।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ জানান, আমদানিকারকেরা মনে করেছিল সরকার রমজানে পেঁয়াজ আমদানিতে নতুন করে অনুমতি দেবে না। এ কারণে আমদানিকারকরা বেশি বেশি করে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেন। সরকার আবার অনুমতি দেওয়ায় দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম পড়ে গেছে। তারা দাম কম হওয়ায় লোকসানের আশঙ্কায় পেঁয়াজ আমদানি করছেন না। কেউ তো লোকসান মেনে ব্যবসা করবে না।

এদিকে বন্দরের বেসরকারি অপারেটর পানামা হিলি পোর্টের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন মল্লিক জানান, বুধ ও বৃহস্পতিবার বন্দর দিয়ে দেশে পেঁয়াজ আমদানি করা হয়নি। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার ১১ ভারতীয় ট্রাকে ২৫০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে।

সোনালী/জেআর