ঢাকা | জুলাই ১৭, ২০২৪ - ৬:১৩ অপরাহ্ন

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে চার নারীকে সম্মাননা দিল মহিলা পরিষদ

  • আপডেট: Friday, April 1, 2022 - 11:10 pm

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের ৫২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে নগরীর মুক্তিযুদ্ধ পাঠাগারে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেই সাথে মহিলা পরিষদের পক্ষ থেকে জীবন সংগ্রামী চারজন নারীকে সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের রাজশাহী জেলা শাখা এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী শাহিন আকতার রেনী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ভাষা সৈনিক মোশাররফ হোসেন আখুঞ্জি, বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির রাজশাহীর সভাপতি শফিকুর রহমান বাদশা, দৈনিক সোনালী সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক মো. লিয়াকত আলী, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক মুস্তাফিজুর রহমান খান আলম, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির রাজশাহীর সাধারণ সম্পাদক মনিরুজামান উজ্জ্বল।

এ ছাড়াও বক্তব্য দেন আইনজীবী দিল সেতারা চুনী ও সাংস্কৃতিককর্মী কামাল উল্লাহ সরকার। অনুষ্ঠানে সমাজে নানা সমস্যার সম্মুখীন হওয়া সহকারী অফিস মাষ্টার ও মহিলা ট্রেন চালক শারমিন সুলতানা, ডাব বিক্রেতা লাবনী, মহিলা রিকশা চালক সুমতি মেরী ক্রুস ও নারী অটো চালক রাবেয়া বেগমকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি কল্পনা রায়। স্বাগত বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক অঞ্জনা সরকার। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাংগঠনিক সম্পাদক আলিমা খাতুন।

বক্তারা বলেন, ১৯৭০ সালের ৪ এপ্রিল সুফিয়া কামালের নেতৃত্ব পূর্ব পাকিস্তান মহিলা সংগ্রাম প্রতিষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক মালেকা বেগম বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর এই পরিষদের নামকরণ হয় বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। এই প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর মাধ্যমে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের পক্ষ থেকে অভিন্ন পারিবারিক আইন চালু করার আহ্বান জানান বক্তারা। তার মধ্যে অভিন্ন বিবাহ ও বিবাহবিচ্ছেদ রেজিস্ট্রেশন আইন চাল করতে হবে, অভিন্ন ভরণপোষণ আইন চালু করতে হবে, অভিন্ন অভিভাবক ও প্রতিপালন আইন চালু করতে হবে, অভিন্ন উত্তরাধিকার আইন চালু করতে হবে ও অভিন্ন দত্তক গ্রহণ আইন চালু করতে হবে। দেশ উপহার দেয়ায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিশিষ্ট সমাজসেবী শাহিন আক্তার রেনী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা এবং সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

প্রসঙ্গত, আগামি ৪ এপ্রিল পবিত্র মাহে রমজান হওয়ায় ১ এপ্রিল প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়।