ঢাকা | জুলাই ২৪, ২০২৪ - ১:০৩ অপরাহ্ন

ইউরোপে জো বাইডেনের জন্য অপেক্ষা করছে যেসব চ্যালেঞ্জ

  • আপডেট: Thursday, March 24, 2022 - 12:15 pm

অনলাইন ডেস্ক: ইউরোপের নেতা ও মিত্রদের সঙ্গে ব্রাসেলসে বৃহস্পতিবার বৈঠকে মিলিত হবেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বৈঠকে গুরুত্ব পাবে ইউক্রেন ইস্যু।

এ সফরে জো বাইডেনের জন্য যেসব চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে তা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। সেগুলো হলো—

একতা প্রদর্শন

ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর থেকে বেশ কিছু প্রথাগত শেকল ভেঙে যুক্তরাষ্ট্র মিত্রদের সঙ্গে ধাপে ধাপে অগ্রসর হয়েছে। কিন্তু যুদ্ধের তীব্রতা যতই বাড়বে মতভেদ তৈরির সম্ভাবনাও বাড়বে সমানতালে। জো বাইডেনকে তাই মিত্রদের রাজি করাতে হবে যে, ন্যাটোর সংকল্পকে শক্তিশালী করা অস্থায়ী শর্ত নয় বরং নতুন বাস্তবতা।

শরণার্থী সংকট

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পর সীমান্ত উন্মুক্ত করে দেওয়ার কারণে পোল্যান্ডে আশ্রয় নিচ্ছেন লাখ লাখ ইউক্রেনীয়। যদি দক্ষতার সঙ্গে এ সংকট সামাল দেওয়া না যায় তবে তা দেশটিকে সামাজিক বিশৃঙ্খলা ও অর্থনৈতিক অস্থিতিশীলতার দিকে ঠেলে দিতে পারে।

যদি তাই হয়, তবে ন্যাটোর নির্ভরযোগ্য দেশ হিসেবে দেশটির অবস্থানকে সুসংহত রাখা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র উদ্বেগে থাকবে এটিই স্বাভাবিক।

সামরিক সমাধান

যদিও যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে আরও উন্নত দূরপাল্লার বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। প্রকৃতপক্ষে বলার চেয়ে এ কাজ করে দেখানো অত্যন্ত কঠিন।

এ ছাড়া ইউক্রেনকে এ ধরনের সহায়তা দিলে রাশিয়া ন্যাটোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উত্তেজিত হয়ে উঠতে পারে বলে উদ্বেগ রয়েছে।

একটি নিষেধাজ্ঞার রোডম্যাপ

রাশিয়ার ওপর যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশগুলোর বিপর্যয়কর আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার পরও কিয়েভে মস্কোর পূর্ণমাত্রায় হামলার গতিবিধিতে কোনো পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়নি। তবে পশ্চিমা নেতাদের ধারণা, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিষেধাজ্ঞার যন্ত্রণা বাড়বে। এদিকে রাশিয়াকে শায়েস্তা করার জন্য নতুন পথ খুঁজে বের করতে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের নেতাদের ওপর চাপ বাড়ছে।

গুরুত্ব পাবে চীন প্রশ্ন

রাশিয়া থেকে দূরত্ব বজায় রাখা এবং সম্ভব হলে ইউক্রেনে আগ্রাসনের নিন্দায় সোচ্চার হওয়ার জন্য বেইজিংকে রাজি করাতে সম্মিলিতভাবে চেষ্টা চালাতে হবে আমেরিকা ও ইউরোপের দেশগুলোকে। যদি রাশিয়াকে সরাসরি সহায়তা দেয় চীন তবে তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দেওয়া হয়েছে। এ হুমকিতেই বেইজিংয়ের অর্থনীতিতে ইতোমধ্যে ঝাঁকুনি শুরু হয়ে গেছে।

তবে জি২০ এর সম্মেলনে রাশিয়ার অংশ নেওয়ার বিষয়ে চীনের সমর্থন স্পষ্ট করে দিয়েছে যে—বেইজিংকে এত সহজে কাবু করা যাবে না।

সোনঅলী/জেআর