ঢাকা | মে ৩০, ২০২৪ - ৩:৪৯ অপরাহ্ন

পশ্চিমবঙ্গে আগুনে পুড়ে নিহত ১০

  • আপডেট: Tuesday, March 22, 2022 - 7:48 pm

 

অনলাইন ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশের বীরভূম জেলায় তৃণমূল কংগ্রেসের এক নেতা ভাদু শেখ বোমা হামলায় মারা যায়। এর প্রতিক্রিয়ায় কয়েকটি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। আগুনে সব বাড়ি পুড়ে যায়। পরে পুড়ে যাওয়া বাড়ি থেকে ১০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে স্থানীয় পুলিশ।

ভারতীয় পত্রিকা আনন্দবাজার জানায়, গতকাল সোমবার রামপুরহাট পৌরসভার বগটুই গ্রামে রাজনৈতিক সহিংসতার ঘটনা ঘটে। ওইদিন সন্ধ্যায় বগটুই গ্রামে রামপুরহাট এক নম্বর ব্লকের বড়শাল গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান ও তৃণমূল নেতা ভাদু শেখ খুন হয়।

ভাদু শেখ খুন হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যেই গ্রামের সাত-আটটি বাড়িতে আগুন দেওয়া হয়।

সাংবাদিকদের বীরভূম জেলার পুলিশ সুপার নগেন্দ্র ত্রিপাঠী বলেন, সোমবার সন্ধ্যার দিকে গ্রামের একটি স্থানীয় চায়ের দোকানে ভাদু শেখ বসেছিলেন। সেসময় একদল দুষ্কৃতিকারী ওই চায়ের দোকানে তাকে লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করে। রক্তাক্ত অবস্থায় ভাদু শেখকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

রাজ্যের রামপুরহাট সরকারি মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, সেখানে মোট সাতজনের মৃতদেহ পৌঁছেছে। মৃতদেহগুলো আগুনে ঝলসে গেছে। একারণে কতজন পুরুষ ও কতজন নারী তা চিহ্নিত করা যাচ্ছে না। প্রত্যেকের ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে সবার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রাজ্য পুলিশের ডিজি বলেন,`এই ঘটনায় একই বাড়ির সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। ভাদু শেখ নিহত হওয়ার পরে স্থানীয়েরা উত্তেজিত হয়ে বাড়িতে আগুন দিয়েছেন নাকি ঘটনার পেছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে তা তদন্ত করা হবে।‘

পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় রাজনৈতিক কোনো সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পায়নি তারা। ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরে এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে মত তাদের।

তৃণমূলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই ঘটনার সঙ্গে রাজনীতির কোনোও যোগ নেই, স্থানীয় গ্রাম্য বিবাদের জেরেই এমনটা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গ্রামবাসী আনন্দবাজারকে জানান,`ভাদু খুন হওয়ার পর থেকেই গোটা এলাকার চেহারা বদলে গিয়েছিল। রাতে যা হল তা ভাবতে পারিনি।‘