ঢাকা | জুলাই ১৪, ২০২৪ - ১০:৩১ অপরাহ্ন

কেন থেরাপিস্টের কাছে গিয়েছিলেন জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ

  • আপডেট: Sunday, March 13, 2022 - 3:53 pm

অনলাইন ডেস্ক: মহামারী করোনাভাইরাস রোধে দেওয়া লকডাউনের সময় বেশ কিছু দিন সালমান খানের ফার্মহাউজে ছিলেন জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। এরপরই তার নাম জড়িয়ে যায় প্রতারক ব্যবসায়ী সুকেশ চন্দ্রশেখরের সাথে। সুকেশের সঙ্গে অন্তরঙ্গ সম্পর্ক নিয়ে বেশ ঝামেলাই পোহাতে হয়েছে জ্যাকুলিনকে। সেসব ভুলে এবার কাজে ফিরেছেন জ্যাকুলিন। অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির শোয়ে এসে বলিউডের শ্রীলঙ্কান অভিনেত্রী জ্যাকুলিন জানিয়েছেন, করোনার সময় বেশ কঠিন সময় পার করতে হয়েছে। একাকীত্বে ভুগছিলেন। এ জন্য থেরাপিস্টের স্মরণাপন্নও হতে হয়েছে তাকে।

২০২০ সালে করোনা মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার পর কঠিন সময় পার করতে হয়েছে জ্যাকুলিনকে। তিনি জানান, আমি একাকীত্বে ভুগছিলাম। শহরে অনেক মানুষ একা থাকে। তাদের সঙ্গে পরিবার থাকে না। আর আমি আমার সমস্যার সঙ্গে অন্য কাউকে জড়িয়ে ফেলতে চাই না। কাছের বন্ধু বা পরিবারের খারাপ লাগে পারে এমন কিছু আমি তাদের সামনে আনতে চাই না। আমি সংগ্রাম করছি, কষ্ট পাচ্ছি বা একাকীত্বে ভুগছি এসব আমি তাদের জানাতে চাই না। তাই আমি থেরাপিস্টের কাছে গিয়েছি।

জ্যাকুলিন বলেন, থেরাপি নিতে গিয়ে আমি উপলব্ধি করেছি যে বেশিরভাগ সময় আমি নিজেই কথা বলেছি, থেরাপিস্ট শুধু শুনেছে। মাঝে মাজে প্রশ্ন করেছে যে কেন আমার মনে হয় আমি একাকীত্বে ভুগছি। কেন আমি এমন ভাবছি। অনেকে মনে করে থেরাপি অর্থহীন। কিন্তু থেরাপি নিলে নিজেকে আরও ভালো করে বোঝা যায়, আত্মোপলব্ধিটা বেশি করে হয়। কারণ আমরা মাঝে মাঝে নিজেকে সে সময়টা দিতে পারি না।

সোনালী/জেআর