ঢাকা | জুলাই ১৯, ২০২৪ - ৯:২৬ অপরাহ্ন

নওগাঁয় স্থলবন্দর, রাজশাহীতে ট্যাক্সেস ট্রাইব্যুনাল দাবি

  • আপডেট: Thursday, March 10, 2022 - 9:30 pm

স্টাফ রিপোর্টার: ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন জেলা নওগাঁয় স্থলবন্দর চালুর বিষয়টি অনেক দিন ধরেই আলোচনায়। এ জন্য কয়েকদফা সমীক্ষাও চলেছে। কিন্তু স্থলবন্দরের বাস্তবায়ন হয়নি। ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট বিষয়ে প্রাক-বাজেট সভায় এটি বাস্তবায়নে আবারও দাবি জানালেন এ অঞ্চলের ব্যবসায়ীরা। এ ছাড়া রাজশাহীতে ট্যাক্সেস আপীলাত ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ খোলারও দাবি উঠেছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত রাজশাহী শিল্প ও বণিক সমিতি ভবনের সম্মেলন কক্ষে এই প্রাক-বাজেট সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী শিল্প ও বণিক সমিতি আয়োজিত এ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম।

মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে নওগাঁ শিল্প ও বণিক সমিতির পরিচালক মোতাহার হোসেন বলেন, নওগাঁ খুবই সম্ভাবনাময় একটি জেলা। ভারতের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণে এখানে স্থলবন্দর করা সম্ভব। এ নিয়ে বার বার সমীক্ষা হলেও বাস্তবায়ন হয়নি। এটি দ্রুতই করা দরকার। তাহলে নওগাঁর ব্যবসায়ীরা আরও নির্বিঘ্নে ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারবে।

আলোচনায় সোনামসজিদ স্থলবন্দরের নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ শিল্প ও বণিক সমিতির পরিচালক আবদুল আউয়াল। তিনি বলেন, প্রতি অর্থবছরে প্রায় ৮০০ কোটি টাকার রাজস্ব আসে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে। কিন্তু বন্দরটির কোন উন্নয়ন হয়নি। এ দিকে সরকারের নজর দেওয়া উচিত। তিনি স্থলবন্দর কমপ্লেক্স নির্মাণের দাবি জানান।

জয়পুরহাট শিল্প ও বণিক সমিতির পরিচালক এমএ করিম বলেন, ‘প্রতিবছর দেশে যে বাজেট হয় তা আমাদের প্রত্যাশার চেয়েও কম। আমরা আরও বড়, কিন্তু সুষম বাজেট চাই।’ রাজশাহী শিল্প ও বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি আবু বাক্কার ব্যবসায়ীদের ‘টার্ন ওভার ট্যাক্স’ এর বিষয়টি পুনবির্বেচনার দাবি জানান। বলেন, ‘আয় হলেও টার্ন ওভার ট্যাক্স দিতে হয়, না হলেও দিতে হয়। করোনাকালে এই ট্যাক্স দেওয়া ব্যবসায়ীদের জন্য কঠিন।’ দ্রব্যমূল্যের ঊর্দ্ধগতি থাকায় তেলসহ বিভিন্ন পণ্যের আমদানি শুল্ক কমানোর দাবি জানান তিনি।

এ ছাড়া তিনি রাজশাহীতেও ট্যাক্সেস আপীলাত ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ চালুর দাবি জানান। বলেন, রংপুরে যেতে ছয় ঘণ্টা সময় লাগে। রাজশাহীতে যেন সপ্তাহে দুই দিন এই ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ বসে সেই ব্যবস্থা করতে হবে।

রাজশাহী উইমেন চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি রোজিটি নাজনীন আসছে বাজেটে নারীদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার দাবি জানান। রাজশাহীর নারী উদ্যোক্তা আফসানা আশা নারীদের এগিয়ে আসার জন্য নতুন নারী উদ্যোক্তাদের ভ্যাট মওকুফের দাবি জানান।

সভায় এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেন, নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি একটি স্বাভাবিক বিষয়। বিশ্বের সব দেশের পণ্যের দাম কমে এবং বাড়ে। এই সময় আমরা শুল্ক কমিয়ে বাজার ঠিক রাখার চেষ্টা করি। কিন্তু শুল্ক আহরণ না হলে উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হবে। তিনি বলেন, দেশে দৃশ্যমান উন্নয়ন হলে জনগণ ভাবে আমার টাকায় উন্নয়ন হচ্ছে। তারা ট্যাক্স দিতে উদ্বুদ্ধ হয়। এখন সেটা হচ্ছে। তাই উন্নয়নের ট্যাক্স দিতে হবে।

রাজশাহীতে ট্রাইব্যুনাল ও নওগাঁয় স্থলবন্দরের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে জানিয়ে এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেন, ‘আমরা বিষয়গুলো বিবেচনায় নিচ্ছি। সোনামসজিদ স্থলবন্দরের বিষয়ে যে কথা এসেছে তাও সত্য। সেটাও বিবেচনায় নেওয়া হবে।’ নারীদের সুযোগ-সুবিধার দাবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘নারীদের সুযোগ-সুবিধা দিতেই চাই। কিন্তু এক্ষেত্রে অনেক চ্যালেঞ্জ আছে। অনেক সময় অনেক পুরুষই আবার সুযোগ-সুবিধার জন্য নারী সেজে যান নিজের স্ত্রীকে দিয়ে। আমাদের এই মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।’

সভায় অন্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য দেন এনবিআরের শুল্কনীতি বিভাগের সদস্য মাসুদ সালেক, মূসক নীতি সদস্য জাকিয়া সুলতানা, করনীতির সদস্য শামসুদ্দিন আহমেদ প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু।