ঢাকা | জুলাই ২৫, ২০২৪ - ২:৪৮ পূর্বাহ্ন

বড়ভাই স্মার্টফোন না দেওয়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা

  • আপডেট: Wednesday, March 9, 2022 - 1:06 pm

অনলাইন ডেস্ক: পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে বড়ভাই স্মার্ট ফোন কিনে না দেয়ায় রিয়াজ হাওলাদার (১৬) নামে এক কিশোর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার পাড়েররহাট ইউনিয়নের হোগলাবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

রিয়াজ হোগলাবুনিয়া গ্রামের সোবাহান হাওলাদারের ছেলে। উপজেলার পড়েরহাট রাজলক্ষ্মী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী সে।

জানা যায়, বড়ভাই গার্মেন্টস কর্মীর কাছে তার ব্যবহৃত স্মার্টফোনটি চেয়েছিল রিয়াজ হাওলাদার। কিন্তু এসএসসি পরীক্ষার আগে ছোট ভাইকে ফোন দিতে অস্বীকৃতি জানায় বড় ভাই। পরীক্ষার পর তাকে স্মার্টফোন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও অভিমান করে ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে রিয়াজ।

খবর পেয়ে ইন্দুরকানী থানা পুলিশ রাতেই মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর জেলা হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

হোগলাবুনিয়া ওয়াডের্র ইউপি সদস্য হাফেজ আবুল বাশার জানান, রিয়াজের বড় ভাই গার্মেন্টেসে চাকরি করে নতুন একটি স্মার্টফোন কিনেছে। বড় ভাইয়ের ওই ফোনটি চেয়েছিল রিয়াজ। কিন্তু ফোন না দেয়ায় অভিমানে আত্মহত্যা করেছে সে।

রিয়াজের বাবা সোবাহান হাওলাদার বলেন, আমি একজন দিনমজুর। আমার ছেলেকে পড়াশোনা করিয়ে বড় চাকরি করানোর ইচ্ছা ছিল। কিন্তু তা আর কপালে জুটল না। একটি মোবাইলের জন্য গলায় দড়ি দিয়ে মারা গেল।

ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনামুল হক জানান, একটি স্মার্টফোনের জন্য এসএসসি পরীক্ষার্থী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সোনালী/জেআর