ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ৪:৫৩ অপরাহ্ন

১২ বছরে দ্বিগুণ হয়েছে পাট উৎপাদন: কৃষিমন্ত্রী

  • আপডেট: Sunday, March 6, 2022 - 7:16 pm

 

অনলাইন ডেস্ক: বিএনপির আমলে দেশের পাট ও পাটশিল্প ধ্বংসের মুখে ছিল মন্তব্য করে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকারের নানামুখী উদ্যোগে পাটের হারানো সুদিন প্রায় ফিরিয়ে এসেছে। ১২ বছরে প্রায় দ্বিগুণ বেড়েছে পাটের উৎপাদন।

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে পাট ও পাটপণ্যের চাহিদা ক্রমশ বাড়ছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, পাটের সম্ভাবনার সঙ্গে শাকসবজি ও ফলমূল রপ্তানির সম্ভাবনাকে পুরোপুরি কাজে লাগাতে পারলে বছরে কৃষিপণ্যের রপ্তানি আয় শিগগির ১০ বিলিয়ন ছাড়িয়ে যাবে।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বিএনপি ও জোট সরকারের আমলে দেশের পাটশিল্প ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল। গত ১২ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করে পাটের হারানো সুদিন প্রায় ফিরিয়ে এনেছে। ২০০৫-৬ সালে পাটের উৎপাদন ছিল মাত্র ১০ লাখ মেট্টিক টন। বর্তমানে পাটের উৎপাদন প্রায় ১৭ লাখ মেট্টিক টন, ১২ বছরে প্রায় দ্বিগুণ বেড়েছে।

বিএনপির প্রতি ইঙ্গিত করে কৃষিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশকে ধ্বংস করার জন্য, অস্থিতিশীল করার জন্য এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নষ্ট করার জন্য এখনও দেশে রাজাকার-আলবদররা তৎপর রয়েছে। এখনও তারা (বিএনপি) বলে নির্বাচনে আসবে না। তারা আন্দোলন, হরতাল করে, গাড়িতে আগুন দিয়ে, মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করে দেশকে অস্থিতিশীল করবে, সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করবে। পৃথিবীর কোথাও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হয় না।

তিনি বলেন, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, ভারতসহ গণতান্ত্রিক সব দেশে নির্বাচন কমিশনকে ক্ষমতা দেওয়া হয়। আমাদের দেশেও সর্বোচ্চ ক্ষমতা সংবিধানকে দেওয়া আছে। সংবিধানের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনকে দেওয়া হয়েছে। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের সময় সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী। ধারা ১২৬ তে বলা হয়েছে সব অল এক্সিকিউটিভ হেজ দ্য রেসপন্সিবিলিটি টু ইলেকশন কমিশন টু ফ্রি অ্যান্ড ফেয়ার ইলেকশন।

‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন নতুন হয়েছে। মানুষের মধ্যে আশার সৃষ্টি হয়েছে। এ নতুন নির্বাচন কমিশন ২০২৩ সালে জাতিকে একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দেবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।’

তিনি বলেন, যারা আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছেন তারা ২০১৪, ২০১৮ সালের কথা ভুলে যাবেন না। গাড়ি পুড়িয়েছেন, মানুষকে দগ্ধ করেছেন, হত্যা করেছেন, এখনও অনেকে সে জ্বালা বয়ে বেড়াচ্ছে। মানুষ এগুলো ভুলেনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। সভাপতিত্ব করেন বস্ত্র ও পাট সচিব মো. আব্দুর রউফ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, পাট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আতাউর রহমানসহ পাট উৎপাদন ও ব্যবসার সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন অংশীজনের প্রতিনিধিরা।