ঢাকা | জুলাই ১৭, ২০২৪ - ৩:০৩ পূর্বাহ্ন

সমুদ্র সম্পদ আহরণ অর্থনীতিকে সমৃদ্ধশালী করবে: প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেট: Sunday, March 6, 2022 - 12:40 pm

অনলাইন ডেস্ক: প্রাকৃতিক সম্পদের আধার বঙ্গোপসাগরে সম্পদ আহরণ দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধশালী করার পাশাপাশি ব্লু-ইকোনমির লক্ষ্য বাস্তবায়নে সহায়তা করবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে মেরিন ফিশারিজ একাডেমির ৪১তম ব্যাচ ক্যাডেটদের ‘মুজিববর্ষ পাসিং আউট প্যারেড’ অবলোকন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

রোববার সকালে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ বছর মেরিন ফিশারিজ একাডেমির ৪১তম ব্যাচে নটিক্যাল বিভাগে ৩৩ জন, মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ৩১ জন, মেরিন ফিশারিজ বিভাগে ২০ জন ক্যাডেটসহ সর্বমোট ৮৪ জন নারী ও পুরুষ ক্যাডেটের পাসিং আউট হচ্ছে।

ক্যাডেটদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘প্রাকৃতিক সম্পদের আধার বঙ্গোপসাগর প্রতিনিয়ত বাংলাদেশের জনগণের আমিষের চাহিদা মেটাতে বিপুল পরিমাণ মৎস্য সম্পদ যোগান দিয়ে যাচ্ছে। তাই বঙ্গোপসাগর হতে মৎস্য সম্পদ আহরণ, সংরক্ষণ ও বাজারজাতকরণের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ও পরিবেশ দূষণরোধে তোমাদের সর্বদা অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। কাজটি দুরূহ হলেও তোমাদের লব্ধজ্ঞান এক্ষেত্রে সহায়ক হবে বলে আমি আশাবাদী।’

শেখ হাসিনা বলেন, ভারত ও মিয়ানমার থেকে আমরা বিশাল সমুদ্রসীমা জয়লাভ করেছি। আওয়ামী লীগ সরকার সুনীল অর্থনীতির (ব্লু ইকোনমি) ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করেছে। সমুদ্রকে ব্যবহার ও সমুদ্র হতে সম্পদ আহরণের মাধ্যমে বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার আর্থসামাজিক উন্নয়নের একটি নতুন দ্বার উন্মোচিত হয়েছে।

বাংলাদেশের সমুদ্রসীমা জয়ের ইতিহাস তুলে ধরে তিনি বলেন, ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দ্য টেরিটরিয়াল ওয়াটার্স অ্যান্ড মেরিটাইম জোনস অ্যাক্ট-১৯৭৪ প্রণয়ণ করেন। এর ধারাবাহিকতায় জাতিসংঘ ১৯৮২ সালে আন্তর্জাতিক সমুদ্র আইন হিসেবে ইউনাইটেড ন্যাশনস কনভেনশন অন দ্য ল অব দ্য সি প্রণয়ন করেন।

তার শাসনামলে ১৯৭৩ সালে দেশে সর্বপ্রথম মেরিটাইম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মেরিন ফিশারিজ একাডেমি প্রতিষ্ঠিত হয়।

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর মেরিন ফিশারিজ একাডেমির অগ্রযাত্রা ব্যাহত হয় উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রতিষ্ঠানকে আন্তর্জাতিক মানে রূপ দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করে। অবকাঠামোগত সুবিধা বৃদ্ধির পাশাপাশি নটিক্যাল ও মেরিটাইম ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগও করে দেওয়া হয়। ২০১৮ সালে মেরিন ফিশারিজ একাডমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটির অধিভুক্ত হয়েছে।

এই একাডেমি থেকে পাস হওয়া ৫৮ জন মহিলা ক্যাডেটসহ ১ হাজার ৯১৪ জন ক্যাডেট দক্ষতার সঙ্গে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন মেরিটাইম সেক্টরে কর্মরত রয়েছেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

সোনালী/জেআর