ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২৪ - ৩:১২ অপরাহ্ন

ইউক্রেনে ‘নো-ফ্লাই জোন’ নিয়ে যে হুঁশিয়ারি দিলেন পুতিন

  • আপডেট: Sunday, March 6, 2022 - 1:39 pm

অনলাইন ডেস্ক: ইউক্রেনের আকাশ সীমায় ‘নো-ফ্লাই জোন’ জারি করতে ন্যাটো ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি। তবে আমেরিকা ও ন্যাটোর তরফে সেই দাবি মানা হয়নি। তারা সরাসরি ইউক্রেনের আবেদন নাকচ করেছে। এর মধ্যে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, ইউক্রেনের আকাশ সীমায় কোনো দেশ বিমান চলাচল নিষিদ্ধ করলে তা হবে এই যুদ্ধে যোগদানের সামিল।

গতকাল শনিবার রাশিয়ার বিমান সংস্থা এরোফ্লটের কর্মীদের সঙ্গে এক বৈঠকে রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, তৃতীয় কোনো পক্ষ কর্তৃক ইউক্রেনের আকাশে ‘নো-ফ্লাই জোন’ ঘোষণা করাকে সশস্ত্র সংঘাতে অংশগ্রহণ হিসেবে বিবেচনা করবে তার দেশ। এটি শুধু ইউরোপ নয়, পুরো বিশ্বের জন্য বড় বিপর্যয় ডেকে আনবে।

বলা হয়েছে, সামরিক দিক থেকে এই নো-ফ্লাই জোন হচ্ছে এমন এলাকা যেখানে হামলা চালানো বা পর্যবেক্ষণের জন্য বিমান চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়। তবে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হয় সামরিক পন্থায়- এই আদেশ লঙ্ঘনকারী বিমানকে গুলি করে ভূপাতিত করতে হয়।

ইউক্রেনের আকাশ সীমায় বিমান চলাচল নিষিদ্ধ করতে ন্যাটোর আপত্তির চরম সমালোচনা করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। তিনি এর জন্য ন্যাটোর ‘দুর্বলতা’ এবং ‘অনৈক্য’কে দায়ী করেছেন। ন্যাটো বলছে, এটা করা হলে আরও বেশি সংখ্যক দেশ যুদ্ধে জড়িয়ে পড়বে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক অভিযান ঘোষণার কয়েক মিনিট পরেই ইউক্রেনে বোমা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ সেনারা। এরপর থেকে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ চলছে। ইতোমধ্যে ইউক্রেন ছেড়েছেন ১২ লাখের বেশি মানুষ। এদিকে চলমান সংকট নিরসনে আগের দুই বৈঠকে সমাধানে না আসতে পারায় ফের বৈঠকে বসতে যাচ্ছে রাশিয়া ও ইউক্রেনের প্রতিনিধিরা। আগামীকাল সোমবার তৃতীয় দফায় আলোচনায় বসতে যাচ্ছে ইউক্রেন ও রাশিয়ার কর্মকর্তারা। সূত্র : আল-জাজিরা

সোনালী/জেআর