ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২৯, ২০২৪ - ১২:২১ অপরাহ্ন

মোহনপুরে আ’লীগে পরিবর্তন চান তৃণমূল নেতাকর্মীরা

  • আপডেট: Saturday, March 5, 2022 - 10:46 pm

 

মোহনপুর প্রতিনিধি: মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনকে ঘিরে তৃণমূল নেতা কর্মীদের মাঝে চাপাক্ষোভ বিরাজ করছে। দলের ত্যাগীদের অভিযোগ ওয়ার্ড-ইউনিয়ন কমিটি না করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন করেছেন সভাপতি-সম্পাদক। এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী নেতাকর্মীরা।

অভিযোগ সূত্রে ও নেতা কর্মিদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নিজেদের সভাপতি ও সম্পাদকের পদ টিকিয়ে রাখতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রকে তোয়াক্কা না করে ওর্য়াড ইউনিয়ন পর্যায়ের নতুন কমিটি না করে তাড়াহুড়ো করে সম্মেলনের ঘোষণা দেন বর্তমান নেতাকর্মি শূন্য সভাপতি আব্দুস সালাম ও সম্পাদক মোহনপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন কবিরাজ। সরকারি বিধিমোতাবেক সরকারি কর্মকর্তা দলীয় কোন পদে থাকতে না পারলেও স্থানীয় সংসদের আর্শীবাদে ক্ষমতার দাপটে দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদকের পদ ধরে রেখেছেন অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন কবিরাজ। এবারও সম্মেলনে তিনি সম্পাদকের প্রার্থীর ঘোষণা দিয়েছেন।

স্থানীয় একাধিক ত্যাগী নেতা কর্মী বলেন, অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম দলের ত্যাগী নেতা কর্মীদের দূরে সরিয়ে তার পক্ষের কিছু চামচা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধ পন্থায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির পদটি যুগের পর যুগ দখল করে আছেন। এর মধ্যে গত উপজেলা নির্বাচনে দলের অনেক যোগ্য প্রার্থী থাকলেও তার আপন শালা স্থানীয় সংসদ সদস্য হওয়ার সুবাধে ক্ষমতার দাপটে অন্য সব প্রার্থীদের নির্বাচন হতে সরে দাঁড়াতে বাধ্য করে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় উপজেলা চেয়ারম্যানের পদটিও দখল করেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ত্যাগী নেতা সভাপতি প্রার্থী সুলতান মাহমুদ বলেন, অ্যাড আব্দুস সালাম যুগ যুগ ধরে সভাপতির পদটি আঁকড়ে আছেন। এর মধ্যে ক্ষমতার দাপটে হয়েছেন উপজেলা চেয়ারম্যান। আপন শালা সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, অন্য শালা আজাহারুল উদ্দিন বাবলু ইউনিয়ন চেয়ারম্যান। একই পরিবারে সব পদ পদবী পাওয়ায় চলছে যা ইচ্ছে মত। ফলে উপজেলা আওয়ামী লীগ এক পরিবারের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। যার কারনে তাদের দাপটে দলের নেতা কর্মী একেবারে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে। তাই এবারের সম্মেলনে পরিবর্তন চান তৃণমূল নেতাকর্মী।