এফএনএস: আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার গ্রেফতার ১০ আসামিকে পাঁচদিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। আবরারের বাবার করা মামলায় গতকাল মঙ্গলবার গ্রেফতারদের আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছিল পুলিশ। শুনানি নিয়ে ঢাকার মহানগর হাকিম সাদবির ইয়াছির আহসান চৌধুরী পাঁচদিন রিমান্ডের আদেশ দেন বলে জানিয়েছেন মহানগর পুলিশের অপরাধ তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার জাফর হোসেন।
যাদেরকে পুলিশ হেফাজতে পাঠানো হয়েছে তারা হলেন- বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, দ্বিতীয় বর্ষ), সহ-সভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, দ্বিতীয় বর্ষ), সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন (নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, চতুর্থ বর্ষ), উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল (বায়ো মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং, তৃতীয় বর্ষ), সদস্য মুনতাসির আল জেমি (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, দ্বিতীয় বর্ষ), মো. মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ (ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, তৃতীয় বর্ষ) এবং মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের খন্দকার তাবাখখারম্নল ইসলাম তানভির ও একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না। গ্রেফতারদের মধ্যে সাতজনের নাম ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতদের তালিকাতেও আছে। এরা হলেন- মেহেদী হাসান রাসেল, মুহতাসিম ফুয়াদ, মেহেদী হাসান রবিন, অনিক সরকার, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, ইফতি মোশাররফ সকাল ও মুনতাসির আল জেমি।
এই হত্যাকা-ের পর গত সোমবার রাতে ১১ জনকে স’ায়ীভাবে সংগঠন থেকে বহিষ্কারের কথা জানায় ছাত্রলীগ। গত সোমবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বহিষ্কৃতরা হলেন, বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল, সহসভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, সাহিত্য সম্পাদক মনিরম্নজ্জামান মনির, উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল, উপদপ্তর সম্পাদক মুজতবা রাফিদ, সদস্য মুনতাসির আল জেমি, এহতেমামুল রাব্বি তানিম ও মুজাহিদুর রহমান। রোববার রাত ২টার দিকে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সহপাঠীদের বরাতে সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, শিবির সন্দেহে ছাত্রলীগের কর্মীরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। ময়নাতদনত্মকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন, হাতে, পায়ে ও পিঠে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ভোঁতা কিছু দিয়ে পেটানোর ফলে অভ্যনত্মরীণ রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয়েছে আবরারের। পুলিশ ইতোমধ্যে বুয়েট ছাত্রলীগের নয় নেতাকে আটক করেছে এবং ওই হলের ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। ওই নয়জনসহ মোট ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা করেছেন আবরারের বাবা অবসরপ্রাপ্ত ব্র্যাককর্মী বরকতুলস্নাহ। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি নাহিয়ান খান জয় দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের জরম্নরি সিদ্ধানত্ম মোতাবেক বুয়েটের সামপ্রতিক অনাকাঙিড়্গত ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানাই। ছাত্রলীগ কখনও এরূপ ঘটনা বা অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয় না। এ ঘটনার ‘সুষ্ঠু তদনেত্মর স্বার্থে’ সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ইয়াজ আল রিয়াদ ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসিফ তালুকদারকে নিয়ে একটি কমিটি করার কথা জানানো হয় ছাত্রলীগের ওই সংবাদ সম্মেলনে। ছাত্রলীগ সভাপতি নাহিয়ান খান জয় সে সময় বলেছিলেন, ওই কমিটিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সুপারিশসহ তদনত্ম প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। তবে তার আগেই তদনত্ম কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ায় রাতেই ১১ জনকে স’ায়ীভাবে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করার কথা জানানো হয় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এই ভার্তৃপ্রতীম সংগঠনের পক্ষ থেকে।